প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির চাকরিতে কোটা বাতিল


টাইমস ডেস্ক
Published: 2018-10-03 22:47:58 BdST | Updated: 2018-10-15 18:29:43 BdST

সরকারি চাকরিতে প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণিতে কোনো কোটা থাকছে না। সরাসরি মেধার ভিত্তিতে নিয়োগ দেয়ার প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

বুধবার (৩ অক্টোবর) সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মন্ত্রিসভার বিশেষ বৈঠকে এ প্রস্তাবের অনুমোদন দেয়া হয়েছে বলে দুপুরে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোঃ শফিউল আলম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, কমিটির রিপোর্ট মন্ত্রিসভায় উপস্থাপন করা হয়। রিপোর্টে তিনটি সুপারিশ ছিল। প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণিতে মেধার ভিত্তিতে নিয়োগ, কোটা বাতিল এবং কোটা বাতিলের ফলে বিদ্যমান জনগোষ্ঠীর বিষয়ে যথাপযুক্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ।

শফিউল আলম বলেন, যদি কখনও অনগ্রসর সম্প্রদায়ের জন্য কোটার প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয়, তবে সরকার তা করতে পারবে।

দু’তিন দিনের মধ্যে কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপন হবে জানিয়ে তিনি বলেন, আজ-কালের মধ্যে আমরা মন্ত্রিসভার সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেব। এরপর জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় প্রজ্ঞাপন জারি করবে। আশা করছি দুই-তিন দিনের মধ্যে (প্রজ্ঞাপন) হয়ে যাবে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ৩৮, ৪০ তম বিসিএস বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখিত নির্দেশনা অনুসারে হবে।

এর আগে সরকারি চাকরির নবম থেকে ত্রয়োদশ গ্রেড পর্যন্ত কোনো কোটা না রেখে মেধার ভিত্তিতে নিয়োগের নিয়ম চালু করতে গত ১৭ সেপ্টেম্বর মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলমের নেতৃত্বে গঠিত কোটা পর্যালোচনা কমিটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে সুপারিশ জমা দেয়।

ওই কমিটির সুপারিশ প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন পাওয়ার পর বুধবারের মন্ত্রিসভা বৈঠকে তোলা হয়। বৈঠকে ‘প্রজাতন্ত্রের কর্মে সরাসরি নিয়োগের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ সরকারের বিদ্যমান কোটা পদ্ধতি সংস্কার/বাতিলে’ জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রস্তাবে অনুমোদন দেওয়া হয়।

টিআই/ ০৩ অক্টোবর ২০১৮

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।