ক্যান্সারে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের মৃত্যু


ঢাবি টাইমস
Published: 2020-04-06 12:50:06 BdST | Updated: 2020-06-07 14:33:42 BdST

আমার করোনা হয়নি, অথচ পরিস্থিতি দেখে মনে হচ্ছে করোনা জন্য আমার মরে যেতে হবে- গত ২৬ মার্চ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে এমনটাই জানিয়েছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সুমন চাকমা।

আজ সোমবার ঠিকই ওই শিক্ষার্থী চিরবিদায় নিলেন। জানা যায়, ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলেন সুমন। সম্প্রতি তার ফুসফুসজনিত রোগও বেড়েছিল। গত কয়েকদিন ধরে তার শারীরীক অবস্থার অবনতি হলে চিকিৎসা জন্য বিভিন্ন হাসপাতালের দ্বারাস্থ হন তিনি। কিন্তু চিকিৎসা নিতে পারেননি।

সুমন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইন্সটিটিউটের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের ২২তম ব্যাচের। জগন্নাথ হলের আবাসিক শিক্ষার্থী ছিলেন তিনি।

এদিনের সুমনের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করছেন তার সহপাঠিরা। বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী জানান, অনেকদিন ধরেই সুমন ফুসফুসজনিত রোগে ভুগছিলেন এবং গত কয়েকদিন তার শারীরীক অবস্থার অবনতি হওয়ায় বিভিন্ন হাসপাতাল ঘুরেও চিকিৎসা নিতে পারেননি। তিনি বলেন, করোনা আতঙ্কে পরিস্থিতি এমন একটা পর্যায়ে ঠেকেছে যে, সাধারণ রোগীদেরকেও চিকিৎসা দিতে ভয় পাচ্ছেন ডাক্তাররা। আমরা বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার তাঁর বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি।

তার এক বন্ধু ফেসবুকে লিখেছেন, সুমন সব সময় নিজেকে ব্যস্ত রাখত। একদিন হঠাৎ তার শরীরে ক্যান্সার ধরে পড়ে। ভারতে দীর্ঘদিন চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে দেশে ফিরেও এসেছিলো। ফেরার পর একদিন আমাকে সে জানায়, 'ভাই আমি আবারও DURS এ কাজ শুরু করতে চাই'। আমি সাথে সাথে তাকে ফোন করে কাজ শুরু করতে বলি, স্বাগত জানাই।

‘গত কয়েকদিন আগে সে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়, আমার ‘করোনা হয়নি। অথচ পরিস্থিতি দেখে মনে হচ্ছে করোনার কারণেই আমাকে মারা যেতে হবে’। ঠিকই, সুমন আর নেই! করোনা নয়, আগের হওয়া ক্যান্সারেই তার জীবন গেছে। জীবন করেনি তাকে ক্ষমা হায়! তোমার অকাল প্রয়াণে গভীরভাবে শোকাহত আমরা, ওপারে ভালো থাকো ভাই! এছাড়া কিইবা আর চাওয়ার আছে!