২০২১ সালের এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা হবে: শিক্ষামন্ত্রী


Dhaka
Published: 2020-11-16 20:52:14 BdST | Updated: 2020-11-30 11:24:08 BdST

আগামী বছরের মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) এবং উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) পরীক্ষা বাদ হওয়ার সুযোগ নেই বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি বলেছেন, করোনাভাইরাসের প্রকোপ কমলে শিক্ষার্থীদের শ্রেণীকক্ষে নিয়ে ক্লাস করিয়ে পরীক্ষা নেয়া হবে। পরীক্ষার আগের তিন মাস এসব শিক্ষার্থীদের ক্লাস নেয়ার ব্যবস্থা করা হবে।

রবিবার রাতে গণমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাৎকারে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এ বছরের এসএসসি শিক্ষার্থীরা ঠিকভাবে পরীক্ষা দিয়ে ফলাফল পেয়েছে। আর এইচএসসি পরীক্ষার্থীরা পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিয়েছিল কিন্তু তারা পরীক্ষাটা দিতে পারেনি। তাই আমরা তাদেরকে আগের পরীক্ষার ভিত্তিতে পাস দিচ্ছি।

মন্ত্রী বলেন, আগামী বছর যারা এসএসসি বা এইচএসসি পরীক্ষা দেবে; তারা কিন্তু পরীক্ষার আগের একটি বছর নিয়মিত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গিয়ে ক্লাস করার সুযোগ পায়নি। তাদেরকে আমরা যদিও অনলাইনে ক্লাস করিয়েছি, কিন্তু আমরা সবার কাছে পৌঁছাতে পারিনি। যাদের কাছে পৌঁছাতে পারিনি তারা পরীক্ষা দিতে পারবে না এটা হওয়া উচিৎ নয়।

শিক্ষার্থীদের নিয়ে আক্ষেপের কথা জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, আমাদের একটা চিন্তা ছিল আমরা সীমিত আকারে হলেও দশম শ্রেণী এবং দ্বাদশ শ্রেণীকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়ে এসে অন্তত তিন মাস ক্লাস করাবো। তাহলেও আমরা একটি সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে তাদের পরীক্ষাটা নিতে পারবো। কিন্তু পরিস্থিতির কারণে নভেম্বর-ডিসেম্বরেও এটা করা যাচ্ছে না। এটি যদি আমরা এখনই শুরু করতে পারতাম তাহলে ঠিক সময়েই এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষাগুলো নেয়া যেতো।

আগামী বছরের এসএসসি এবং এইচএসসি নিয়ে পরিকল্পনার কথা জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, তুলনামূলকভাবে ডিসেম্বর এবং জানুয়ারির মাঝামাঝি পর্যন্ত শীতের প্রকোপটা বেশি থাকে। কাজেই জানুয়ারির মাঝামাঝি পর্যন্ত আমাদের দেখতে হবে; পরিস্থিতিটা কোন দিকে যাচ্ছে। তারপরেই সুবিধাজনক হলে আমরা ওই তিন মাসের যে সিদ্ধান্ত সেটা শুরু করবো।