বই পরিচিতি

বাদশাহ নামদার


ফেরদৌস আলম
Published: 2017-06-15 07:18:16 BdST | Updated: 2019-08-26 04:02:12 BdST

'বাদশাহ নামদার'

'বাদশাহ নামদার' উপন্যাসের কাহিনী মুঘল সাম্রাজ্যের প্রতিষ্ঠাতা জহির উদ্দিন মুহাম্মদ বাবরের পুত্র নাসিরুদ্দিন মুহাম্মদ হুমায়ূন মীর্জাকে নিয়ে রচিত। কাহিনী শুরু হয় ১৫২৭ খ্রিস্টাব্দের আগস্ট মাসে। বাদশাহ বাবর আদরের পুত্র হুমায়ুনকে নিয়ে বড্ড চিন্তিত। পুত্র হুমায়ুন সাম্রাজ্য নিয়ে পুরাপুরি উদাসীন। সে ব্যস্ত থাকে তাঁর রংতুলি ও পদ্য নিয়ে। প্রকৃতির মাঝেই তাঁর প্রকৃত সুখ। ওই সময়কালেই একবার পুত্র হুমায়ূন মারাত্মক ব্যাধিতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুশয্যায়।

বাদশাহ বাবর নিজের প্রাণের বিনিময়ে খোদার কাছে পুত্রের প্রাণ ভিক্ষা চাইলেন। পুত্রের কালান্তক ব্যাধি শরীরে ধারন করে পঞ্চাশ বছর বয়সে সম্রাটের মৃত্যু হয়। তার তিন দিন পর হুমায়ূন মুঘল সাম্রাজ্যের সিংহাসনে আসীন হন। সম্রাট হুমায়ূন রাজকর্মে অত মনোযোগী ছিলেন না। তিনি ডুবে থাকতেন নিজের জগতে। এই সুযোগে তাঁর ছোট ভাই কামরান মীর্জা শক্তি সঞ্চয় করতে থাকেন। মুঘল সাম্রাজ্যের শত্রু শের খাঁ যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

খামখেয়ালী বাদশাহ সাম্রাজ্য রক্ষায় সাথে পেলেন বিশ্বস্ত ও সাহসী সেনাপতি বৈরাম খাঁকে। সাম্রাজ্য দখল ও রক্ষায় এই অসামান্য উপাখ্যান চলতেই থাকল।

বাদশাহ নামদার হুমায়ূন আহমেদের অসামান্য সৃষ্টিগুলোর অন্যতম। এই ধরনের ঐতিহাসিক উপন্যাস উনি উনার জীবনযাত্রার শেষ প্রান্তে এসে লেখবেন তা হয়ত অনেকেই ভাবতে পারেনি।

মুঘল সাম্রাজ্য নিয়ে যেকোনো ধরণের নন- ফিকশন লেখা হয়ত সহজ। কিন্তু মুঘল সাম্রাজ্যের কোন এক সম্রাটকে নিয়ে এই স্তরের উপন্যাস লিখা আমার মতে কঠিন এক কাজ, যেহেতূ এর ব্যাপ্তি অনেক বিশাল। তারপরও এই অসামান্য কাজ সম্ভব হয়েছে কেবলমাত্র উনার নাম হুমায়ূন আহমেদ বলেই, যার স্থান পাঠকের হৃদয়ে।

আইএম/ ১৫ জুন ২০১৭

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।