আরেক ধাপে একাদশে ভর্তির সুযোগ


টাইমস প্রতিবেদক
Published: 2018-06-27 12:16:02 BdST | Updated: 2018-09-20 17:15:52 BdST

নীতিমালা অনুযায়ী এসএসসি পাস করা শিক্ষার্থীদের কলেজে ভর্তির সর্বশেষ ধাপ শেষ হয়েছে। সোমবার রাতে এই ধাপের ফল প্রকাশ করা হয়। কিন্তু ভর্তির জন্য তিনটি ধাপে আবেদন গ্রহণ ও ফল প্রকাশের পর দেখা যাচ্ছে, ২৯ হাজার ৬৭৭ জন শিক্ষার্থী আবেদন করেও ভর্তির জন্য কোনো কলেজে মনোনীত হয়নি। এই তালিকায় জিপিএ-৫ ধারী শিক্ষার্থী রয়েছে প্রায় এক হাজার। তবে চিন্তার কোনো কারণ নেই, এমন পরিস্থিতিতে ভর্তির জন্য আরেকটি সুযোগ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। বাদ পড়ারা আরেক ধাপে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবে। আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সূত্র তাই বলছে।

বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, সোমবার (২৫ জুন) রাতে প্রকাশিত একাদশ শ্রেণির শেষ ধাপের ভর্তির তালিকায় মোট এক লাখ পাঁচ হাজার ১২ জন ভর্তির জন্য মনোনীত হয়েছে। চলতি বছর মাধ্যমিক ও সমমানের পরীক্ষায় ১৫ লাখ ৭৬ হাজার ১০৪ শিক্ষার্থী পাস করলেও ১২ লাখ ৬৬ হাজার ৩৬১ জন আবেদন করে। তাদের মধ্যে তিন ধাপে মোট ১২ লাখ ২৮ হাজার ১৫ জন ভর্তির জন্য মনোনীত হলো।

জানা গেছে, আবেদনকারীরা সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন না করায় কিছু আবেদন বাতিল হয়েছে।

আবেদন করে ভর্তির সুযোগ না পেয়ে মঙ্গলবার সকাল থেকেই দূর-দূরান্ত থেকে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডে এসে ভিড় করেন শিক্ষার্থী-অভিভাবকরা। সমাধান না পেয়ে অনেককেই আর্তনাদ করে ফিরে যেতে দেখা গেছে।

আদমজী ক্যান্টনমেন্ট স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে বিজ্ঞান বিভাগে জিপিএ-৫ পেয়ে এসএসসি পাস করে শরিফুল ইসলাম সিয়াম। পরপর তিন ধাপে আবেদন করেও সে একটি কলেজেও ভর্তির সুযোগ পায়নি। ভর্তির নিশ্চয়তা পেতে সিয়াম তার মাকে নিয়ে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডে এসে কর্মকর্তাদের কাছে ধরনা দিচ্ছে।

জানতে চাইলে সিয়াম ও তার অভিভাবক জানান, প্রথম ধাপে চারটি কলেজে, দ্বিতীয় ধাপে পাঁচটি এবং শেষ ধাপে পাঁচটি কলেজে আবেদন করে সিয়াম। কিন্তু একটি কলেজেও তাকে মনোনীত করা হয়নি। কোথাও ভর্তি হতে না পেরে সে এখন হতাশ। এ কারণে সকাল থেকে ঢাকা বোর্ডে এসে অপেক্ষা করছে।

সিয়াম বলছিল, বোর্ডের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলেছি। তারা চিন্তা না করতে বলেছেন। নতুন করে আবারও ভর্তির সুযোগ দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন তারা।

তার মতো এমন হাজারও শিক্ষার্থী বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে বোর্ডে এসে ভিড় জমায়। কারও ভুয়া আবেদন বাতিল করা, কেউ ভুয়া নিশ্চায়ন বাতিল, কেউ আবেদন পিন হারিয়েছে, কেউ ভর্তির জন্য কোথাও মনোনীত হয়নি, কেউ না বুঝেই আবেদন করে তা বাতিল করতে এসেছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইতে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শন অধ্যাপক হারুন অর রশিদ বলেন, অনেকে অনেক সমস্যা নিয়ে বোর্ডে ভিড় জমাচ্ছে। ভর্তি প্রক্রিয়ার শেষ ধাপ সম্পন্ন হওয়ায় শিক্ষার্থী-অভিভাবকরা বেশি ভিড় করছেন।

আবেদন করেও এখনো অনেকে ভর্তির জন্য মনোনীত হয়নি। তার মধ্যে জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীও রয়েছে। কেন এমনটি হলো- জানতে চাইলে তিনি বলেন, আসন খালি না থাকলেও ভালো কলেজগুলোতে বারবার আবেদন করায় এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। ভর্তি বঞ্চিতদের জন্য জুলাই মাসের প্রথম সপ্তাহে আরেক ধাপে আবারও ভর্তির সুযোগ দেয়া হবে, যারা এখনো ভর্তি হতে পারেনি তাদের নতুন করে আবেদন নেয়া হবে। আসান খালি থাকা কলেজগুলোতে ফলাফলের ভিত্তিতে শিক্ষার্থীরা ভর্তির সুযোগ পাবে।

জেডএম/ ২৭ জুন ২০১৮

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।