স্কুলছাত্রীকে ছিনিয়ে নিয়ে হত্যা: প্রধান আসামির বাবা-মা গ্রেফতার


টাইমস প্রতিবেদক
Published: 2020-09-25 13:52:08 BdST | Updated: 2020-10-20 05:33:42 BdST

ঢাকার সাভারে প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় ভাইয়ের কাছ থেকে অসুস্থ বোনকে ছিনিয়ে নিয়ে ছুরিকাঘাতে হত্যার ঘটনায় প্রধান আসামি মিজানুর রহমানের (২০) মা ও বাবাকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

বৃহস্পতিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাত ৮টার দিকে মানিকগঞ্জের চারীগ্রামে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এ নিয়ে এ ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করা হলো। তবে প্রধান আসামি মিজানুর রহমান এখনও পলাতক রয়েছেন।

গ্রেফতাররা হলেন- সাভারের ব্যাংক কলোনি এলাকার হাজী আইয়ুব আলীর ছেলে আবদুর রহমান (৬০) ও তার স্ত্রী নাজমুন্নাহার সিদ্দিকা (৫০)। হত্যা মামলায় আবদুর রহমান দুই ও নাজমুন্নাহার তিন নম্বর আসামি।

এর আগে মঙ্গলবার রাতে মানিকগঞ্জের আরিচাঘাট এলাকা থেকে নীলা রায় (১৪) হত্যায় কিশোর গ্যাং সদস্য মিজানুর রহমানের সহযোগী সেলিম পালোয়ানকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তবে তিনি এজাহারভুক্ত আসামি নন।

র‌্যাব ৪-এর সিপিসি ২-এর কোম্পানি কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জমিরউদ্দিন আহমেদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, গ্রেফতারদের সাভার থানায় হস্তান্তর করা হবে। মামলার প্রধান আসামি মিজানুর রহমানকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

পরিবার সূত্র জানায়, নীলাকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন কাজিমুকমাপাড়ার পাশের এলাকার ব্যাংক কলোনির আবদুর রহমানের ছেলে কলেজছাত্র মিজান।

রোববার সন্ধ্যা ৭টার দিকে শ্বাসকষ্ট দেখা দিলে নীলাকে নিয়ে তার ভাই অলক রায় রিকশায় হাসপাতালে যাচ্ছিলেন।

এ সময় অস্ত্রের মুখে নীলাকে টেনেহিঁচড়ে রিকশা থেকে নামিয়ে পালপাড়া এলাকায় নিয়ে যায় মিজান। সাভার বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের উল্টো দিকের একটি গলির ভেতরে নিয়ে নীলার গলায়, পেটে, মুখে ও ঘাড়ে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়।

নিহত কিশোরীর নাম নীলা রায় (১৪)। সে স্থানীয় অ্যাসেড স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্রী ছিল। সে মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার বালিরটেক গ্রামের নারায়ণ রায়ের মেয়ে। তবে পরিবারের সঙ্গে সে সাভার পৌরসভার কাজিমুকমাপাড়া এলাকায় থাকত।

এ ঘটনায় নীলার বাবা নারায়ণ রায় সোমবার রাতে সাভার মডেল থানায় মিজানুর রহমান, তার বাবা আবদুর রহমান ও মা নাজমুন্নাহার সিদ্দিকাসহ অজ্ঞাতনামা আরও চারজনকে আসামি করে মামলা করেন।