ইতালির বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অচলাবস্থা!


Dhaka
Published: 2020-03-11 16:26:45 BdST | Updated: 2020-03-29 20:27:33 BdST

ইতালির কয়েকটি শহরে করোনাভাইরাস ব্যাপক আকারে ছড়িয়ে পড়ার পর দেশটির বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে সৃষ্টি হয়েছে অচল অবস্থা। বাতিল করা হয়েছে ক্লাস এবং পরীক্ষা। তবে অনলাইনের মাধ্যমে ক্লাস ও পরীক্ষা নেয়ার ব্যবস্থা করেছে কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বলছে, কোন ভাইরাসের কারণে শিক্ষার্থীরা কোন সেশনজট কিংবা ক্ষতির শিকার হবেন না। তাদের পরীক্ষা ও নানান কর্মকাণ্ড অনলাইনের মাধ্যমে সম্পন্ন করা হবে। 

সকল ধরনের জনসমাগম নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

দেশটির ইউনিভার্সিটি অফ বলগোনা এবং ইউনিভার্সিটি অফ পিসা ইতিমধ্যেই তাদের সকল শিক্ষা কার্যক্রম অনলাইনে শুরু করেছে।

ইতিমধ্যেই তাদের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা করেছে দেশটির সরকার।

ইউরোপের দেশ ইতালিতে করোনাভাইরাসের ভয়াল থাবায় ক্রমেই বেড়ে চলছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা।

গত ২৪ ঘন্টায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে ১৭৯৭ জন আর মৃত্যু হয়েছে ৯৭ জনের। এ নিয়ে দেশটি মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯১৭২ ও মৃতের সংখ্যা ৪৬৩।

দেশটির বিশেষজ্ঞ ও সংশ্লিষ্টরা ধারণা করছেন আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা আশংকাজনক হারে বাড়বে।

সোমবার (৯ মার্চ) সন্ধ্যায় দেশটির নাগরিক সুরক্ষা সংস্থা এ তথ্য জানিয়েছে। ইতালির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় দাবি করছে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হবার পর চিকিৎসায় সুস্থ হয়েছেন ৭২৪ জন।

ইতালিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা উদ্বেগজনক হারে বাড়ার কারণে রোববার (৮ মার্চ) সন্ধ্যা থেকে লোম্বারদিয়া অঞ্চলের বিভিন্ন শহরের প্রায় ১ কোটি ৬০ লাখ নাগরিককে বাধ্যতামূলক কোয়ারেনটাইনে রাখা হয়েছে। মার্চের মাঝামাঝি পর্যন্ত বন্ধ থাকবে সবগুলো স্কুল ও বিশ্ববিদ্যালয়।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সোমবার ইতালির সেনাপ্রধান সালভাতোর ফারিনা পদত্যাগ করেছেন। ইতিমধ্যে দেশটির সাথে অন্যান্য দেশের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে।

করোনাভাইরাসে আতঙ্কিত না হয়ে প্রবাসী বাংলাদেশীদের সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন ইতালির রাজনৈতিক ও কমিউনিটির নেতারা।