যুক্তরাজ্য-কানাডার ৮ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডেটা চুরি


Dhaka
Published: 2020-07-26 12:13:07 BdST | Updated: 2020-08-10 14:32:13 BdST

র‍্যানসমওয়্যার হামলার মাধ্যমে যুক্তরাজ্য এবং কানাডার অন্তত আটটি বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান এবং সাবেক শিক্ষার্থীদের ডেটা হাতিয়ে নিয়েছে হ্যাকার।

আক্রান্ত বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে রয়েছে ইউনিভার্সিটি অফ ইয়র্ক, ইউনিভার্সিটি কলেজ, অক্সফোর্ড, ইউনিভার্সিটি অফ লিডস এবং ইউনিভার্সিটি অফ লন্ডন। মার্কিন সফটওয়্যার সেবাদাতা ব্ল্যাকবডের মাধ্যমে হ্যাকিংয়ের এই ঘটনা ঘটেছে বলে প্রতিবেদনে জানিয়েছে ব্রিটিশ দৈনিক টেলিগ্রাফ।

শিক্ষা প্রশাসন, তহবিল জোগাড় এবং অর্থ ব্যবস্থা সফটওয়্যারের ক্ষেত্রে বিশ্বের সবচেয়ে বড় সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর একটি ব্ল্যাকবড। মে মাসেই হ্যাকিংয়ের শিকার হয়েছে প্রতিষ্ঠানটির সফটওয়্যার। জুলাই পর্যন্ত হ্যাকিংয়ের বিষয়টি জানায়নি প্রতিষ্ঠানটি।

হ্যাকারকে মুক্তিপণও দিয়েছে ব্ল্যাকবড। তবে মুক্তিপণ হিসেবে কী পরিমাণ অর্থ দিয়েছে তা জানায়নি প্রতিষ্ঠানটি।

এখন বলা হচ্ছে, ওই ঘটনায় তথ্য ফাঁসের শিকার হয়েছে অন্তত আটটি বিশ্ববিদ্যালয়।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীদেরকে ইমেইলে বিষয়টি জানিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো। আক্রান্তদের মধ্য বর্তমান ও সাবেক শিক্ষার্থী, কর্মী এবং অন্যান্য সমর্থক রয়েছেন।

চুরি যাওয়া তথ্যের মধ্যে ফোন নাম্বার, অনুদানের ইতিহাস এবং ইভেন্টে অংশগ্রহণের তথ্য রয়েছে। ক্রেডিট কার্ড বা অন্যান্য লেনদেন তথ্য ক্ষতিগ্রস্থ হয়নি বলেই ধারণা করছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

হ্যাকিংয়ের এই ঘটনায় কারা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে তাদের তথ্য প্রকাশ করেনি ব্ল্যাকবড। প্রতিষ্ঠানটি বলছে, “আমরা গ্রাহকদের গোপনতাকে সম্মান দিতে চেয়েছি” এবং ডার্ক ওয়েবে ডেটা বিক্রি বা ছড়ানো হচ্ছে কি না, তা বের করতে আইন প্রয়োগকারী সংস্থা এবং তৃতীয় পক্ষের তদন্তকারীর সঙ্গে কাজ করছি।

বিবৃতিতে লিডস ইউনিভার্সিটি বলছে, “আমরা আবারও আমাদের সাবেক শিক্ষার্থীদেরকে নিশ্চিত করতে চাই যে, ব্ল্যাকবড যখনই আমাদেরকে ঘটনাটি জানিয়েছে, আমরা তখন থেকেই কী ঘটেছে তা জানতে নিরলসভাবে কাজ করছি, যাতে আক্রান্তদেরকে সঠিক তথ্য জানানো যায়।”

ব্ল্যাকবড প্রেসিডেন্ট এবং প্রধান নির্বাহী মাইক গিয়ানোনি বলেন, “যখনই এই র‍্যানসমওয়্যার হামলা হয়েছে, আমরা এটি বন্ধ করতে সক্ষম হয়েছি এবং কোনো গ্রাহকের ডেটা প্রকাশ পাবে এমন কোনো কারণ দেখছি না।”

বেহাত হওয়া ডেটা সাইবার অপরাধীরা যাতে নষ্ট করে দেয়, সেজন্য মুক্তিপণ দিয়েছে ব্ল্যাকবড।