অপরাজিতার উপকারিতা


টাইমস অনলাইনঃ
Published: 2019-08-21 01:44:22 BdST | Updated: 2019-09-17 14:27:12 BdST

শুধু রূপে নয়, অপরাজিতা ভেষজগুণেও অনন্য। এ গাছের কাণ্ড, পাতা, ফুল ও শিকড় বিভিন্ন রোগের মহৌষধ। সাধারণত মূর্ছা, হিস্টিরিয়া, বয়ঃসন্ধিকালীন অস্থিরতা, গলগণ্ড, ফুলা রোগ, শুস্ক কাশি, স্বরভঙ্গ- ইত্যাদি রোগে গাছের উল্লিখিত অংশগুলো কাজে লাগে। মূর্ছা যাওয়ার সময় মূল, গাছ ও পাতা থেঁতলে ছেঁকে এক চামচ রস খাইয়ে দিলে ভালো হয়। বয়ঃসন্ধিকালীন অস্থিরতায় মূলের ছাল তিন থেকে ছয় গ্রাম পরিমাণ নিয়ে শিলে বেটে দিনে দু'বার আতপ চাল ধোয়া পানি দিয়ে সাত দিন খেলে সেরে যায়। গলগণ্ড রোগে গাছের মূল পাঁচ-ছয় গ্রাম পরিমাণ ঘি দিয়ে শিলে পিষে অল্প মধু মিশিয়ে সকাল-বিকেল সাত দিন খেলে
ভালো হয়ে যায়। শুস্ক কাশি সারাতে গাছের মূলের রস এক চা চামচ আধা কাপ অল্প গরম পানিতে মিশিয়ে নিতে হবে। সেই পানি দিনে তিনবার করে সাত দিন ১০-১৫ মিনিট মুখে পুরে রেখে ফেলে দিতে হবে। তাতে ভালো কাজ হবে। কপালের অর্ধেকটা জুড়ে ব্যথা হলে এক টুকরো মূল ও গাছ থেঁতলে রসটুকু হাতের তালুতে নিয়ে নাক দিয়ে টেনে দু'তিনবার নস্যি নিলে উপকার পাওয়া যায়। এ ছাড়া আরও অনেক ধরনের রোগে অপরাজিতার লোকজ ব্যবহার লক্ষ্য করা যায়।

.

খাদ্য হিসেবে এর প্রচলন তেমন একটা না থাকলেও এর রয়েছে যথেষ্ট পুষ্টিগুণ। চীনে এই ফুল শুকিয়ে বা কাঁচা অবস্থায় চা তৈরি করে পান করা হয়। থাইল্যান্ডে এই ফুল খাদ্যে ব্যবহার করা হয়। লিখেছেন ডায়েট প্লানেট নিউট্রিশন কনসালট্যান্সির পুষ্টিবিদ মাহবুুবা চৌধুরী

♦ অপরাজিতায় তিন ধরনের অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট রয়েছে। এটি দেহে অক্সিডেন্টিভ স্ট্রেস কমিয়ে ফ্রি রেডিক্যাল তৈরিতে বাধা দান করে এবং ক্যান্সারের মতো কঠিন রোগ প্রতিরোধে সাহায্য করে।

♦ হরমোনের সমতা বজায় রাখে, গলগণ্ড রোগ প্রতিরোধে সাহায্য করে।

♦ এই ফুলের তৈরি চা অতিরিক্ত ওজন ও বাতজনিত ব্যথা কমায়, সর্দি-কাশি নিয়ন্ত্রণ করে। অন্ধত্ব, চোখের ছানি ও নানা সংক্রমণের হাত থেকে রক্ষা করে।

♦ এই চা লেবুর রসের সঙ্গে মিশিয়ে পান করলে চর্ম ও চুলের কোমলতা ও উজ্জ্বলতা বাড়ায়।

♦ মস্তিষ্কের রোগ ডিমেনশিয়া, আলঝেইমার ইত্যাদি নিরাময়েও এর ব্যাপক ভূমিকা রয়েছে। এ জন্য এই ফুলের চা-কে ‘ব্রেনটনিক’ বলা হয়।

♦ অপরাজিতার রস গ্লুকোজের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে, যা ডায়াবেটিস রোগের জন্য বেশ উপকারী।

♦ কোষ্ঠকাঠিন্য ও মাইগ্রেন রোগে বেশ কাজ দেয়।

♦ প্রতিদিন ১০-১২টি ফুল কাঁচা বা শুকনো এককাপ পানিতে ফুটিয়ে ছেঁকে দুই চা চামচ লেবুর রস+এক চা চামচ মধু মিশিয়ে পান করা যায়। এতে দেহের অবসাদ দূর হবে, মন চাঙা হবে।

♦ এই ফুল টবে বা বাগানে চাষ করে পুরো বছরের চাহিদা পূরণ করা সম্ভব।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।