বিধ্বস্ত বিমানের যাত্রী ছিলেন শেখ সাহেরা খাতুন মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থী


মোঃ জাহিদ হাসান
Published: 2018-03-13 11:05:08 BdST | Updated: 2018-06-24 13:31:26 BdST

নেপালে ঢাকা-কাঠমাণ্ডু রুটে ইউএস-বাংলার বিধ্বস্ত বিমানে ছিলেন গোপালগন্জের শেখ সাহেরা খাতুন মেডিকেল কলেজের শেষ বর্ষের ছাত্র পিয়াস রায়। ফ্লাইটের যাত্রীদের তালিকার ৫০ নম্বরে ছিলেন তিনি।

তার গ্রামের বাড়ি বরিশালে। হিমালয় কন্যার রূপ দেখতে প্রথম বারের মতো নেপালের কাঠমান্ডুতে যাওয়ার জন্য ঢাকা থেকে বেসরকারী বিমান সংস্থা ইউ এস বাংলার উড়োজাহাজে যাত্রা করেন।

ফ্লাইটে ওঠার আগ মুহূর্তে পিয়াস রায় তার ফেসবুকে হাসি মাখা মুখের ছবি সহ স্ট্যাটাস দেন। বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম ও সহপাঠীদের থেকে নেয়া তথ্যের ভিত্তিতে, বিধ্বস্ত ফ্লাইটের যাত্রী তালিকায় থাকা পাসপোর্ট নম্বরের সাথে পিয়াস রায় এর পাসপোর্ট নম্বর মিলে যায়।

তার মোবাইল ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার সাথে কোনো যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। এ বিষয়ে তার সহপাঠী খালিদুর রহমান জিহাদ এর সাথে কথা বললে তিনি জানান, তারা মর্মাহত তবে সে নিহত কিনা এখনও হাসপাতালে আছে তা জানা যাচ্ছে না।তারা এখনও আশায় আছে পিয়াস রায় সেই হাসিমাখা মুখখানা নিয়ে তাদের মাঝে আবারও ফিরে আসবে।

এ বিষয়ে তার পরিবারের সাথে একাধিকবার মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

এসএম/ ১৩ মার্চ ২০১৮

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।