যাচাই করে দান করুন

মানবিক বিবেকের সাথে প্রতারণা


টাইমস অনলাইনঃ
Published: 2018-05-20 15:57:31 BdST | Updated: 2018-10-22 01:04:18 BdST

ইমরান আমিরঃ আজ রবিবার বেলা ২ টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান লাইব্রেরীর সামনে এক রিক্সাওয়ালা হঠাৎ পড়ে গিয়ে সে কাতরাচ্ছিলো মনে হলো সে মারা যাবে।উপস্থিত আমরা যারা ছিলাম দৌড়ে তাকে তুললাম।পানি খাওয়ালাম,মাথায় পানি দিয়ে একটা সিঁড়িতে হেলান দিয়ে বসালাম।

সে স্বাভাবিক ভাবে কোন কথা বলতে পারছিলো না।যত টুকু বললো তাতে বুঝা গেলো, তার সন্তানের অপারেশন হয়েছে এখন মিডফোর্ড হাসপাতালে আছে।তার নিজের ও অপারেশন হয়েছে, সে ও অসুস্থ। শার্ট উল্টিয়ে অপারেশনের দাগ দেখালো।

তার কাছে কোন টাকা নেই চিকিৎসা করার জন্য।আমরা কয়েক জন তার এই অবস্থা দেখে খুব মায়া হলো ভাবলাম লাইব্রেরী থেকে কিছু টাকা উঠিয়ে দিতে পারলে লোকটির কিছুটা হলেও উপকার হবে।

এই ভেবে লাইব্রেরী ভেতরে ঢুকলাম। মোট চারটি রুমের মধ্যে তিনটি থেকে টাকা উঠিয়ে যখন মেয়েদের রুমে ঢুকে টাকার কথা বললাম তখন এক আপু বললো" ভাইয়া এই লোক ফ্রড" একই ভাবে সে টিএস সি থেকে টাকা নিয়েছে।

সাথে সাথে নিচে গিয়ে দেখি সে কেক খাচ্ছে (কেউ হয়তো তাকে কিনে দিছে)।তাকে বললাম মিডফোর্ডে চলেন কোথায় আপনার সন্তান আমরা দেখবো। তখন সে বললো আমার সন্তান অসুস্থ না, আমি অসুস্থ। আমরা বললাম তাহলে আপনি আমাদেরকে মিথ্যা বলেছেন।সে স্বীকার করলো এবং বললো সে ভারী কাজ করতে পারেনা তাই সে মিথ্যা বলেছে।

তার কাছে জানতে চাইলাম এরকম সে কত বার করেছে।প্রথম বলেছে ২ বার পরে বলে ৫ বার মানে সে এ রকম অনেক বার করেছে।প্রথম সে এমন ভান করছিলো যে সে নড়তেই পারবেনা।যখন অনেকেই তাকে মারার জন্য ধমক দিচ্ছিলো তখন সে নড়ে চড়ে বসলো কিন্তু রমযান মাস বলে কিছু না করেই তাকে ছেড়ে দেওয়া হলো সে নিজে থেকেই সুস্থভাবে উঠে রিক্সাটা নিয়ে হেটে চলে গেলো।
সে রিক্সা নিয়ে হাটছিলো এবং আস্তে আস্তে তার হাটার গতিও বাড়ছিলো।পরে সে সুস্থ মানুষ হয়েই রিক্সা চালিয়ে চলে গেলো।

মোট টাকা উঠালাম ২৫৬৬ টাকা। পরে এটা মসজিদের ফান্ডে রেখে দেওয়া হয়েছ।

এইভাবে ক্যাম্পাসে নানা ধরনের ভন্ড প্রতারক ছেলে মেয়েদের ইমোশন কে কাজে লাগিয়ে ধান্দা করছে।আর তাদের জন্য সত্যিকারের অসহায় ও বিপদগ্রস্ত লোকটি আমাদের সহায়তা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।আমরা বিরক্ত ও অবিশ্বাস করে আসল লোকটিকেই সাহায্য করছিনা।

এই পোস্ট টি পড়ে আপনি সচেতন হবেন বলে আশাকরি কিন্তু এটা কখনোই করবেন না যে আমি আর কাউকে দান বা সাহায্য করবোনা।হতেও তো পারে ভাগ্যের নির্মম পরিহাসে আমি বা আপনি মানুষের কাছে সাহায্যের হাত নিয়ে যেতে পারি। আমি আপনি সমাজের অসহায় মানুষকে সাহায্য না করলে তারা যাবে কোথায়........

বিদিবিএস 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।