ত্রাণ বিতরণে অনিয়ম: সাংবাদিক পেটালেন ইউপি চেয়ারম্যান


হবিগঞ্জ
Published: 2020-04-01 21:45:36 BdST | Updated: 2020-06-01 18:29:35 BdST

ত্রাণ বিতরণে অনিয়মের খবর ফেইসবুকে লাইভ করায় ইউপি চেয়ারম্যান ও তার লোকজনের হামলায় নবীগঞ্জ উপজেলায় তিন সাংবাদিকসহ ৫ জন আহত হয়েছেন।

বুধবার বিকেলে উপজেলার আউশকান্দি বাজারে এই ঘটনা ঘটে। বিক্ষুব্ধ জনতা ইউপি চেয়ারম্যানের মালিকানাধীন ‘অরবিট হাসপাতাল’ ভাঙচুর করে।

হামলায় গুরুতর আহত সাংবাদিক শাহ সুলতান আহমদকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজে প্রেরণ করা হয়েছে।

করোনা ভাইরাসের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া স্বল্প আয়ের মানুষের মধ্যে সরকারের ত্রাণ বিতরণে অনিয়মের খবর পেয়ে ‘আসুন অসহায় দিনমজুরদের মনের কথা শুনি’ শিরোনামে ফেইসবুকে লাইভ সম্প্রচার করেন দৈনিক প্রতিদিনের সংবাদ ও চ্যানেল সিক্সের নবীগঞ্জ উপজেলা প্রতিনিধি শাহ সুলতান আহমদ। লাইভে ১০ কেজি চালের বদলে ৫ কেজি চাল দেওয়া হচ্ছে বলে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে কয়েকজন অভিযোগ করেন।

এ ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে আউশকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান মুহিবুর রহমান হারুন দলবল নিয়ে সাংবাদিক শাহ সুলতান আহমেদের ওপর চড়াও হন। তারা ক্রিকেট ব্যাট দিয়ে পেটাতে থাকলে সুলতানকে রক্ষায় দৈনিক আমার সংবাদের প্রতিনিধি এম মুজিবুর রহমান ও চ্যানেল এসের প্রতিনিধি বুলবুল আহমেদসহ আরও তিনজন এগিয়ে এলে তাদেরকেও পেটানো হয়। স্থানীয় লোকজন গুরুতর আহত শাহ সুলতানকে উদ্ধার করে নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করেন। পরে তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

এদিকে সাংবাদিকদের পেটানোর ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে জনতা আউশকান্দি বাজারে চেয়ারম্যান হারুনের মালিকানাধীন অরবিট হাসপাতালে হামলা চালায়। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিশ্বজিৎ কুমার পালের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সাংবাদিক ও চেয়ারম্যানের পক্ষের লোকজন একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছেন। আমি ও নবীগঞ্জ থানার ওসি উভয় পক্ষকেই মামলা করার জন্য পরামর্শ দিয়েছি।

নবীগঞ্জ থানার ওসি বলেন, তিনি ঘটনাস্থলে রয়েছেন। পরে কথা বলবেন বলে কল কেটে দেন।