স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে অর্ধশতাধিক কর্মী ছাঁটাইয়ের অভিযোগ


Dhaka
Published: 2020-07-25 21:54:13 BdST | Updated: 2020-08-10 14:07:11 BdST

স্টার্মফোড বিশ্ববিদ্যালয়ে অর্ধশতাধিক কর্মী ছাঁটাই করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ভুক্তভোগীদের দাবি, বিনা কারণে তাদের ছাঁটাই করা হয়েছে। করোনা পরিস্থিতিতে কোরবানি ঈদের আগে এ সিদ্ধান্তকে অমানবিক বলে দাবি করেছেন তারা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অফিসের কর্মকর্তা রাজলক্ষ্মী বলেন, অন্যায়ভাবে আমাদের ছাঁটাই করা হয়েছে। গত ৮ বছর ধরে আমি স্টার্মফোড বিশ্ববিদ্যালয়ে চাকরি করছি। গতকাল (শুক্রবার) অফিস থেকে মোবাইলে এসএমএস দিয়ে ছাঁটাইয়ের ছুটি নিতে ডাকা হয়। আজ (শনিবার) অফিসে গেলে পাওনা ছাড়াই চিঠি দেয়।

তিনি বলেন, করোনায় আমার স্বামীর চাকরি চলে গেছে। এখন বিনা নোটিশে আমার চাকরি চলে যাওয়ায় খুবই খারাপ অবস্থার মধ্যে পড়তে হচ্ছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ছাঁটাই হওয়া একজন কর্মকর্তা বলেন, দীর্ঘদিন ধরে আমি স্টার্মফোড বিশ্ববিদ্যালয়ে চাকরি করছি। গত চার মাস ধরে ঠিকমতো বেতন দেওয়া হচ্ছে না। এখন বেতন ছাড়া ছাঁটাই আমাদের মহাবিপদের মধ্যে ঠেলে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া আরও কয়েকজন কর্মী এই প্রতিবেদকের কাছে ছাঁটাই হওয়ার বিষয়টি জানিয়েছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যানকে এ বিষয়ে ফোন দিলে তিনি রেজিস্ট্রারের সঙ্গে কথা বলতে বলেন। পরে রেজিস্ট্রার আব্দুল মতিনকে একাধিকবার ফোন দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।

জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের পাবলিক রিলেশন অফিসার সুপা সাদিয়া বলেন, এটি বিশ্ববিদ্যালয়ের আভ্যন্তরীণ বিষয়। আমাদের ধানমন্ডি এবং সিদ্ধেশ্বরীতে মোট দুইটি ক্যাম্পাস রয়েছে। ইউজিসি থেকে নির্দেশনা আছে ধানমন্ডি ক্যাম্পাস পুরোপুরি গুটিয়ে সিদ্ধেশ্বরী চলে আসার বিষয়ে। তাই একটা ক্যাম্পাসে একই বিভাগে অধিক কর্মী হওয়ায় যায়গা সংকুলানসহ অন্যান্য কিছু কারণে কিছু কর্মীকে দুঃখজনকভাবে ছাঁটাইয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ।