৭০ ভাগ শিক্ষার্থী মনে করেন সাদ্দামকে সিনেটে পাঠানো উচিত ছিল


ঢাবি টাইমস
Published: 2019-06-18 14:31:59 BdST | Updated: 2019-09-21 16:59:18 BdST

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় ৭০ শতাংশ শিক্ষার্থী সাদ্দাম হোসেনকে সিনেটে পাঠানো উচিত ছিল বলে ভোট দিয়েছেন। শিক্ষার্থীরা মনে করেন সাদ্দামকে সিনেটে না পাঠানোর সিদ্ধান্তটি পুরোপুরি ভুল।

ক্যাম্পাসটাইমস এর ফেসবুক পেইজে পরিচালিত একটি অনলাইন পোলে শিক্ষার্থীরা এ মতামত দিয়েছেন।

পোল

তারা মনে করেন, সাদ্দাম হোসেন সিনেটে গেলে শিক্ষার্থীদের পক্ষে যৌক্তিকভাবে দাবি উত্থাপন করতে পারতেন এবং শিক্ষার্থীরাও তাদের দাবি আদায় করে আনতে পারতেন। সাদ্দাম হোসেনের যৌক্তিক ও সাবলীল  বক্তব্যের প্রতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের অন্যরকম টান রয়েছে।

সম্প্রতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সিনেটে ৫ জন ছাত্র প্রতিনিধির নাম ঘোষণা করা হয়েছে। তাদের মধ্যে সর্বাধিক ভোটে নির্বাচিত ডাকসুর এজিএস সাদ্দাম নেই।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সাদ্দামকে সিনেটে দেখতে চেয়েছেন বলেই তাকে সর্বাধিক ভোট দিয়েছেন।কিন্তু তাকে কেন সিনেটে পাঠানো হলোনা- এ নিয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে ধুয়াশা ও আলোচনার জন্ম নিয়েছে।

সাদ্দাম হোসেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক।    

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সিনেটের সদস্য হয়েছেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জিত চন্দ্র দাস।

এই দুইজন ডাকসু ভোটে নির্বাচিত না হলেও ডাকসুর পক্ষ থেকে তাদেরকে সিনেট সদস্য বানানোর জন্য ভিসি বরাবর আবেদন করলে তা মঞ্জুর করা হয়।

সিনেটের ৫ ছাত্র প্রতিনিধি 

ডাকসু থেকে ৫ জন সিনেট সদস্যের অন্যরা হলেন ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুর, জিএস গোলাম রাব্বানী এবং ডাকসু সদস্য তিলোত্তমা শিকদার।

এ বিষয়ে সাদ্দাম বলেন, "নারীদের ক্ষমতায়নের বৃহত্তর লক্ষ্যকে সামনে রেখে একজন মেয়েকে সিনেট সদস্য হিসেবে মনোনীত করা হয়েছে। রাজনৈতিক উদারতার বহিঃপ্রকাশ হিসেবে নুরুল হক নুরকেও মনোনীত করা হয়েছে।"

সিনেট সদস্য হিসেবে তাদেরকে মনোনীত করার চিঠি গত বৃহস্পতিবার বিকালে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের কাছে পাঠানো হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ঢাবি ভিসি মো. আখতারুজ্জামান বলেন, পাঁচজন ছাত্র প্রতিনিধি ঢাবির সিনেট সদস্য হিসেবে মনোনীত হয়েছেন। ডাকসু বহির্ভূত দুইজন সদস্যের ব্যাপারে তিনি বলেন, এটা হতেই পারে। ডাকসুর যারা প্রতিনিধি আছে তারা চাইলে এটা হতে পারে।

আগামী ২৬শে জুন প্রথমবারের মতো তারা সিনেট অধিবেশনে যোগ দেবেন।

ডাকসুর গঠনতন্ত্রে রয়েছে, ডাকসু থেকে ৫ জন সিনেটে ছাত্র প্রতিনিধি হিসেবে প্রেরণ করার।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।