ঢাবি শিক্ষার্থী সংগ্রামের বাঁচার আকুতি


ঢাবি টাইমস
Published: 2019-09-05 17:04:50 BdST | Updated: 2019-09-23 06:25:34 BdST

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের ২০১১-১২ সেশনের শিক্ষার্থী খাইরুল ইসলাম সংগ্রাম। তিনি এখন মরণব্যাধী ব্লাড ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন। অথচ এই সংগ্রামই সদ্য প্রকাশিত ৪০তম বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন। তিনি মাস্টার দ্য সূর্যসেন হলের আবাসিক ছাত্র।

কিছুদিন আগে সংগ্রাম তার বন্ধুদের উদ্দেশ করে বলেছিলেন, বন্ধু,আমি কাল সারারাত ইন্টারনেট ঘাঁটাঘাঁটি করে দেখলাম আমার এখন যে অবস্থা, এ অবস্থা থেকে মাত্র ২০ শতাংশ মানুষ বাঁচতে পারে। বন্ধু, আমি এত তাড়াতাড়ি মরতে চাই না, আমি বাঁচতে চাই।

সংগ্রাম সেই ছোট্ট বয়সেই বাবাকে হারিয়ে তার জীবন যুদ্ধ শুরু হয়েছিল কষ্ট আর মহাসংগ্রামের মধ্য দিয়ে। শত প্রতিকূলতার মাঝেও স্বীয় মেধার স্বাক্ষর রেখে ভর্তি হয়েছিলেন প্রাচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। লেখাপড়া শেষ করে ঠিক যেই মুহূর্তে পরিবারের জীবন যুদ্ধের হাল ধরার কথা ঠিক তখনি লিউকেমিয়া (ব্লাড ক্যানসার) আক্রান্ত হয়ে তাকে প্রতিনিয়ত সংগ্রাম করতে হচ্ছে মৃত্যুর সঙ্গে। মা-বাবার দেওয়া সংগ্রাম নামটির যথার্থ ব্যবহারই হচ্ছে তার সঙ্গে।

ব্লাড ক্যানসারে আক্রান্ত সংগ্রামের প্রাথমিক স্টেজে টাকা লাগবে প্রায় ২৫-৩০ লক্ষ। একটি নিম্নবিত্ত পরিবারের পক্ষে খরচ বহন করা খুবই কষ্টসাধ্য ব্যাপার। আমরা কী পারি না একটু মানবতা প্রকাশ করে একটি নতুন জীবন উপহার দিতে?

সংগ্রাম বর্তমানে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন। সেপ্টেম্বরের ৮ তারিখে চেন্নাইয়ে নিয়ে যাওয়া হবে। আর এই সময় যদি আমরা তার পাশে দাঁড়াতে পারি তাইলে জিতে যাবে মানবতা, বেঁচে যাবে একটি পরিবারের স্বপ্ন।

ব্লাড ক্যানসারে আক্রান্ত সংগ্রামকে সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা : সংগ্রামের বিকাশ- (01854960660, 01755376272)। রকেট- (019432407870)। অ্যাকাউন্ট নাম : এমডি. খায়রুল ইসলাম, অ্যাকাউন্ট নম্বর : 0511120084216, আল ফারাহ্ ইসলামী ব্যাংক লি. যাত্রাবাড়ি শাখা, ঢাকা।

সংগ্রামের মায়ের অ্যাকাউন্ট : 0100138770286, মোছা: জাহানারা বেগম, জনতা ব্যাংক লি. হাসাদাহ শাখা জীবননগর চুয়াডাঙ্গা।

 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।