পূজার দিন ভোট পেছানোর দাবিতে মুসলিম হয়েও অনশনে সৈকত


ঢাবি টাইমস
Published: 2020-01-18 03:52:22 BdST | Updated: 2020-08-14 17:52:15 BdST

সরস্বতী পূজার দিন ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচন পেছানোর দাবিতে অনশন করছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের একটি গ্রুপ। অনশনকারীদের সাথে সকল ধর্মমতের শিক্ষার্থীরা সংহতি জানিয়েছেন। তবে অনশন করছেন একমাত্র মুসলিম শিক্ষার্থী তানভির হাসান সৈকত।

যিনি ডাকসুর আলোচিত সদস্য। গণরুমের শিক্ষার্থীদের অধিকার আদায়ে আন্দোলন করে ইতিমধ্যেই শিক্ষার্থীদের  প্রশংসা কুড়িয়েছেন।

শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে নয়টার দিকে তার সঙ্গে কথা হয় ক্যাম্পাস টাইমস প্রতিবেদকের।

প্রতিবেদককে তিনি বলেন, অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশে পূজার দিন কোনোভাবেই নির্বাচন মেনে নেয়া যায় না। এখানে আমার সহপাঠী সিনিয়র-জুনিয়র ভিন্নধর্মের অনেকেই অনশন করছেন । আমিও তাদের সাথে সংহতি জানিয়ে অনশনে বসেছি। যতক্ষণ পর্যন্ত দাবি মেনে না নেয়া হবে ততক্ষণ পর্যন্ত অনশন করব।

সৈকত বললেন, আমি যখন তাদের সাথে সংহতি জানাতে আসলাম দেখি হিন্দু ধর্মাবলম্বী ছাড়া এখানে অন্য কেউ অনুসণ করছেন না । অনেকেই সংহতি জানিয়ে চলে যাচ্ছেন । বিষয়টা আমার নজরে পড়ে। তাই আমি নিজে মুসলিম হয়ে তাদের সাথে অনশনে বসলাম।  কারণ পূজা সকল ধর্মের মানুষের জন্য একটি উৎসব। আমাদের সবার আগে পরিচয় আমরা মানুষ।

সরস্বতী পূজার জন্য আসন্ন ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের দাবিতে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সংহতি জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মোহাম্মদ আখতারুজ্জামান।

আজ (১৭ জানুয়ারি) রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে অনশনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে দেখা করে তিনি তাদের পাশে থাকার আশ্বাস দেন।

উপাচার্য বলেন, “শিক্ষার্থীদের এ আন্দোলন গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ এবং অসাম্প্রদায়িক চেতনাকে তুলে ধরে। তাদের এ দাবি যৌক্তিক। আমি নির্বাচন কমিশনের কাছে সরস্বতী পূজার দিন সিটি নির্বাচন না করার আহ্বান জানাই।”

এদিকে, আমরণ অনশনের দ্বিতীয় দিনে আজ অনশনরত শিক্ষার্থীদের মধ্যে অন্তত দশজন অসুস্থ হয়ে পড়ে। তাদের মধ্যে দুজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন জগন্নাথ হল সংসদের সহ-সভাপতি উৎপল বিশ্বাস। অনশনরত জগন্নাথ হল সংসদের সাধারণ সম্পাদক কাজল দাসসহ আরও সাতজন শিক্ষার্থীকে স্যালাইন দেওয়া হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

গতকাল প্রায় ৫০ শিক্ষার্থী সিটি নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের দাবিতে রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে আমরণ অনশন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন।