ইয়েল ও ক্যামব্রিজ ইউনিভার্সিটিকে পেছনে ফেলে ২য় ঢাবির আইবিএ


ঢাবি টাইমস
Published: 2020-09-16 02:35:26 BdST | Updated: 2020-10-21 05:25:27 BdST

২০১৯ সালে ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ (আইইউবি) এর একটি দল এই প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন। সেবার দলটি ফাইনালে উঠতে ব্যর্থ হয়েছিলেন। তবে বিশ্বের অন্যতম মর্যাদাপূর্ণ বিতর্ক টুর্নামেন্টে এ বছর এশিয়ার প্রথম দল হিসেবে ফাইনালে উঠে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ব্যবসা প্রশাসনের ইনস্টিটিউটের (আইবিএ) একটি দল।

ফাইনালে প্রথম স্থান লাভ করেছে হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়। এছাড়া তৃতীয় ইয়েল বিশ্ববিদ্যালয় এবং চতুর্থ স্থান অর্জন করেছে ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়। এইচডাব্লিউএস রাউন্ড রবিন-২০২০ বির্তক প্রতিযোগিতার আয়োজক ছিল যুক্তরাষ্ট্রের হোবার্ট এবং উইলিয়াম স্মিথ কলেজ। করোনা মাহামারির মধ্যে এবার অনলাইনে এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

  • প্রতিযোগিতা বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছেন ঢাবির আইবিএর স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থী সৌরদীপ পল এবং সাজিদ খন্দকার।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের ফিনান্সের ছাত্র সাজিদ খন্দকারকে এই বিতর্ক প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় সেরা বক্তার পুরস্কার প্রদান করা হয়। তাছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের ফিনান্সের ছাত্র ছিলেন সৌরদীপ পল। এই বিতর্ক প্রতিযোগিতায় তিনি সপ্তম সেরা বক্তার স্থানটি অর্জন করেছেন।

২০১৯ সালে, আইইউবি প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছিল তবে ফাইনালে উঠতে ব্যর্থ হয়েছিল।

এশিয়ার প্রথম বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে ফাইনালে উঠার অভিজ্ঞতা প্রসঙ্গে ঢাবির আইবিএর শিক্ষার্থী সাজিদ খন্দকার বলেন, আমাদের শুভাকাঙ্খীরা এই প্রতিযোগিতায় অন্যতম দল হিসাবে বিবেচনা করেছিল। তাই আমরা সত্যিই অবাক হয়নি! তবে অবাক হয়েছি যখন আমরা জেনেছিলাম যে আমরা এশিয়ার প্রথম দল হিসেবে ফাইনালে উঠেছি। তবে এশিয়ান বিতর্ককারীরা গত পাঁচ বছর বা তারও বেশি সময় ধরে বিশ্বব্যাপী ধারাবাহিকভাবে দুর্দান্ত পারর্ফমেন্স করেছে।

হোবার্ট এবং উইলিয়াম স্মিথ কলেজের বিতর্কের পরিচালক এরিক বার্নেস বলেন, অতীতে অনেক এশিয়ার অনেক দল এ প্রতিযোগিতায় নিয়েছে। তবে কেউ ফাইনালে অংশ নেওয়ার সুযোগ পায়নি। তবে এবার প্রথম এশীয় দল হিসেবে সাজিদ ও সৌরদীপ চূড়ান্ত পর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে। ফাইনালে তারা দ্বিতীয় স্থানও ধরে রেখেছে।