চা-সিগারেটের বিনিময়ে সেবা, ইবির ৩ কর্মচারীকে শোকজ


টাইমস ডেস্ক
Published: 2020-09-21 18:37:36 BdST | Updated: 2020-10-20 05:40:33 BdST

চা-সিগারেটের বিনিময়ে সেবা দেয়ার অভিযোগে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) তিন কর্মচারীকে শোকজ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। অভিযুক্তরা হলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অফিসের কর্মচারী জিল্লুর রহমান, মনিরুল ইসলাম ও মুরাদ হোসেন।

সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (ভারপ্রাপ্ত) আবুল কালাম আজাদ লাভলু এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (ভারপ্রাপ্ত) আবুল কালাম আজাদ লাভলু জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে উপ-উপাচার্য অধ্যাপক শাহিনুর রহমানের নির্দেশনায় তাদের শোকজ করা হয়। গতকাল তারা শোকজের জবাব দিয়েছে। জবাব উপ-উপাচার্যের কাছে পাঠানো হয়েছে। এতে তারা নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন।

জানা যায়, গত ১৬ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের ২০১০-১১ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী রাকিব রাজ পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অফিসের কর্মচারীদের অমানবিক আচরণ নিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন। স্ট্যাটাসে সাবেক ওই শিক্ষার্থী কিছু কর্মচারীর উদ্ভট আচরণ, সেবাপ্রদানে অনীহা, কাজে ফাঁকি ও চা-সিগারেটের বিনিময়ে সেবার বিষয় উল্লেখ করেন। মুহূর্তের মধ্যে ওই স্ট্যাটাস নিয়ে ফেসবুকে তোলপাড় শুরু হয়। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মচারীদের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তুলে ধরে ওই স্ট্যাটাসে কমেন্ট করেন সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা। পরে অভিযুক্ত ওই তিন কর্মচারীকে নিয়ে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হলে তা প্রশাসনের দৃষ্টিগোচর হয়। ফলে তাদের শোকজ করা হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (ভারপ্রাপ্ত) আবুল কালাম আজাদ লাভলু বলেন, শিক্ষার্থীরা যাতে হয়রানির শিকার না হয় সেজন্য তাদের কড়া নির্দেশনা দেয়া হয়েছিল। তবুও এমন ঘটনা দুঃখজনক। শিক্ষার্থীদের থেকে সেবার বিনিময়ে টাকা নেয়া কোনোভাবেই সমর্থনযোগ্য নয়। ব্যাংকের রশিদ ছাড়া কাউকে টাকা না দেয়ার অনুরোধ জানান তিনি।