ঢাবির ইন্টারন্যাশনাল হলে নারী প্রবেশ নিষিদ্ধের কারণ


টাইমস অনলাইনঃ
Published: 2018-05-20 15:47:49 BdST | Updated: 2018-10-22 01:00:31 BdST

"ইন্টারন্যাশনাল হোস্টেলে কি কারণে মেয়েদের প্রবেশ নিষিদ্ধ কাহিনীটা আমি শুনেছি।একজন শিক্ষক দূর্ঘটনায় মারা গিয়েছিলেন।বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষ তাঁর স্ত্রী এবং ছেলে-মেয়েদের অসহায়ত্বের কথা চিন্তা করে তাঁর বেগমকে ইন্টারন্যাশনাল হোস্টেলে ওয়ার্ডেনের কাজটি দিয়েছিল।ভদ্রমহিলা তার আসল বয়সের তুলনায় তরুণী মনে হতো এবং চেহারায় একটা চটক ছিল।

নতুন চাকরিতে যোগ দিয়েই তিনি একই সঙ্গে দু'জন বিদেশি ছাত্রকে ঘায়েল করে ফেলেছিলেন।একজন মালয়েশিয়ান,আরেকজন প্যালেস্টাইনের।তাঁর চমৎকার ক্রীড়াটি অনেকদিন পর্যন্ত সুন্দরভাবে চালিয়ে আসছিলেন।কিন্তু একদিন গোল বাধলো।

প্যালেস্টাইনের ছাত্রটি এক বিকালবেলা অফিসের ভেজানো দরজা ঠেলে ভেতরে ঢুকে দেখে মালয়েশিয়ান ছাত্রটি ওয়ার্ডেনকে চুমো খাচ্ছে।এই দৃশ্য দর্শন করার পর তার রক্ত চড়বড় করে উজানে বইতে আরম্ভ করলো।সে রুমে গিয়ে ছুরি নিয়ে এসে মালয়েশিয়ান টির ওপর চড়াও হলো।আঘাতের লক্ষ্য ছিল বুক,কিন্তু মালয়েশিয়ানটি সরে যাওয়ায় লেগেছিল কাঁধে।
তারপর থেকে হোস্টেলে কোনো মহিলা আসা নিষেধ"।

সোর্স: অর্ধেক নারী অর্ধেক ঈশ্বরী উপন্যাস
আহমদ ছফা
পৃষ্ঠা:১৪

বিদিবিএস 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।