ছাত্রলীগ নেতৃত্বের অধিকাংশই ব্রাজিল সমর্থক


টাইমস অনলাইনঃ
Published: 2018-07-06 20:41:34 BdST | Updated: 2018-07-17 15:58:58 BdST

বিশ্বকাপ ফুটবলের উন্মাদনায় সারা দেশের মতো শিক্ষাঙ্গনগুলোও যখন মেতে উঠেছে, তখন ছাত্র সংগঠনগুলো তা থেকে পিছিয়ে নেই। ছাত্র নেতারাও সাংগঠনিক ব্যস্ততার মধ্যে প্রিয় দলের খেলা দেখতে ভুলছেন না।

ক্ষমতাসীন সরকারের ছাত্রসংগঠন ছাত্রলীগের শীর্ষনেতাদের মধ্যে ফুটবলে দল সমর্থনে ব্রাজিলের আধিপত্য।সংগঠনটির সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন ব্রাজিলের সমর্থক।

কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনসহ নানা ঘটনায় উত্তপ্ত পরিস্থিতির মধ্যে সাংগঠনিক কর্মকাণ্ডের মধ্যেই নিয়মিত বিশ্বকাপের ম্যাচগুলো তারা দেখছেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের নিয়েই; টিএসসি সড়কদ্বীপে ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে বড় পর্দায় খেলা দেখার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

তবে আগে আর্জেন্টিনা দলকে সমর্থন করতেন এমন অনেককেই নতুন করে ব্রাজিল সমর্থন করতে দেখা গেছে। সেদিকে ইঙ্গিত করে কেউ কেউ ব্যঙ্গ করে বলছেন, ‘ভাই ব্রাজিল, আমিও ব্রাজিল’।

আর্জেন্টিনা সমর্থক হিসেবে পরিচিত এমন কয়েকজন ছাত্রলীগ নেতা অভিমানের সুরে বলেছেন, সংগঠনটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক দুজনেই ব্রাজিল সমর্থক হওয়ায় এবং আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা নিজেও ব্রাজিল ফুটবলের ভক্ত হওয়ায়, যারা আগে আর্জেন্টিনা বা অন্য দলের সমর্থক ছিল, তারাও নেতাদের সাথে থাকার জন্য ব্রাজিল সমর্থন করছে।

এবিষয়ে ছাত্রলীগ সভাপতি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আপনি সাংবাদিকতা করেন, আমি স্টুডেন্ট পলিটিক্স করি। এখন কেউ যদি আমার, আপনার আচরণে মুগ্ধ হয়ে আমার, আপনার প্রফেশনে আসতে চায় সেক্ষেত্রে আমরা কি তাকে স্বাগত জানাবো না?
“আমি আর আমার সেক্রেটারি (এস এম জাকির হোসাইন) দুজনেই ব্রাজিল সমর্থক। নেতা-কর্মীরা আমাদের ভালোবেসে ব্রাজিলে যোগ দিতে চেয়েছে, তাই আমরা তাদের সাদরে গ্রহণ করেছি।

“তাছাড়া একটা টিম ৩২ বছর কাপ জিতে না। ওই টিমের অনেকেই হতাশা থেকে আমাদের দলে যোগ দিয়েছে।"

ব্রাজিল সমর্থনের কারণ জানতে চাইলে সাইফুর রহমান সোহাগ জানান, ৯৮ বিশ্বকাপ থেকেই তিনি খেলা দেখেন। দলটিতে তারকা খেলোয়াড়দের উপস্থিতি তাকে ছোটবেলা থেকেই ব্রাজিল সমর্থনে প্রেরণা যুগিয়েছিলো।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক কমিটির সভাপতি আবিদ আল হাসান আর্জেন্টিনার পাঁড় সমর্থক। খুব ছোটবেলা থেকে পারিবারিকভাবে কিংবদন্তি ম্যারাডোনার নাম মুখে মুখে শুনেই তিনি দলটিকে ভালোবাসতে শুরু করেন।

তিনি বলেন, “এরপর তো মেসি অধ্যায়ের শুরু হয়। নিঃসন্দেহে সে পৃথিবীর সেরা খেলোয়াড়দের একজন। সেজন্যই দলটির প্রতি এখনো ভালোবাসা কাজ করে।"

তবে আর্জেন্টিনা ‘রাউন্ড অব সিক্সটিনেই’ বাদ পড়ায় অবাক হননি তিনি।

“এবারের টিমটা আসলে অতোটা স্ট্রং ছিল না। ডিফেন্স, মিডফিল্ডে বেশ দুর্বলতা ছিল। তবে টিম বাদ পড়ায় খারাপ তো লাগছেই।"

তবে গত কমিটিতে তার সঙ্গের সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন প্রিন্স ব্রাজিল সমর্থক।

শিগরিই ঘোষণা হতে যাচ্ছে ছাত্রলীগের নতুন কমিটি। বুধবার রাতে গণভবনে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার সাথে সাক্ষাতের পর পদ পেতে সবার আগ্রহ প্রধানমন্ত্রীর দিকে। পদ প্রত্যাশীদের মধ্যে বেশীরভাগই এবার ব্রাজিল সমর্থক।

মধু 

ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক কমিটির প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক মাজহারুল ইসলাম শামীম, স্কুল বিষয়ক উপ-সম্পাদক খাজা খায়ের সুজন, আইন বিষয়ক সম্পাদক আল নাহিয়ান খান জয়, আইন বিষয়ক উপ-সম্পাদক সাদ্দাম হোসাইন, বিজয় একাত্তর হল ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শেখ ইনান, কর্মসূচী ও পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক রাকিব হোসেন, সহ-সম্পাদক খাদিমুল বাশার জয়, দপ্তর সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন শাহাজাদা, শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক গোলাম রাব্বানীসহ অনেকেই ব্রাজিল সমর্থক।

তবে প্রচার সম্পাদক সাইফ উদ্দিন বাবু, সমাজসেবা বিষয়ক সম্পাদক রানা হামিদ, উপ আপ্যায়ন বিষয়ক সম্পাদক আরিফুজ্জামান আল ইমরান, দপ্তর বিষয়ক উপ-সম্পাদক নকিব সুমন সমর্থন করছেন আর্জেন্টিনা ।

ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক কমিটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আদিত্য নন্দী বলছেন, তিনি যে দলের সমর্থন বরাররই করে আসছেন তারা এবার বিশ্বকাপে কোয়ালিফাই করেনি।

চারবারের বিশ্বকাপজয়ী দল ইতালির না খেলার হতাশা ঘুচিয়ে নিতে তিনি এবার সমর্থন করছেন দুই ইউরোপীয় ফুটবল ‘জায়ান্ট’ বেলজিয়াম ও ফ্রান্সকে।

সহ-সভাপতি আরেফিন সিদ্দিক সুজনও ইতালির না থাকায় এখন ফ্রান্সের সমর্থন দিচ্ছেন। কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি মেহেদী হাসান রনি ব্রাজিল সমর্থক।

তবে তিনি দাবি করছেন, সহমর্মিতার জায়গা থেকে তিনি আর্জেন্টিনার দুটি খেলায় তাদের সমর্থন দিয়েছিলেন।

যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সায়েম খান এবার নাইজেরিয়ার সমর্থক। এর আগের বিশ্বকাপে তিনি আর্জেন্টিনা সমর্থন করতেন বলে জানিয়েছেন তার একাধিক ঘনিষ্ঠজন।

লেখাটি বিডিনিউজ২৪ থেকে নেয়া 

বিদিবিএস 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।