সম্প্রতি ঢাবি কর্তৃপক্ষের নেওয়া সিদ্ধান্তগুলো আন্দোলন দমনে নেওয়া


ঢাবি টাইমস
Published: 2018-07-11 23:26:45 BdST | Updated: 2018-09-20 16:58:58 BdST

সম্প্রতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের নেওয়া সিদ্ধান্তগুলোকে আন্দোলন দমনে নেওয়া হয়েছে বলে মনে করে প্রগতিশীল ছাত্র জোট। নিরাপত্তার অজুহাত দেখিয়ে নেওয়া এ সিদ্ধান্তগুলো অগণতান্ত্রিক অ্যাখ্যা দিয়ে তা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি।

১১ জুলাই, বুধবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন থেকে এ দাবি জানানো হয়েছে। সাংবাদিকদের সামনে ছাত্র ফেডারেশনের বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি উম্মে হাবিবা বেনজির জোটের পক্ষে লিখিত বক্তব্য পড়ে শোনান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি মো. ফয়েজউল্লাহ, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের আহ্বায়ক আলমগীর সুজন প্রমুখ।

উম্মে হাবিবা বেনজির বলেন, শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ ও নিরাপত্তা বিঘ্নিত হয় হলগুলোতে গণতান্ত্রিক পরিবেশ না থাকায়। বিশ্ববিদ্যালয় হল প্রশাসন সেখানে দখলদার সন্ত্রাসীদের সহযোগীর ভূমিকা পালন করে। অথচ বর্তমান পরিস্থিতিতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে উল্টো এর দায়ভার চাপানো হচ্ছে ছাত্রদের উপর। ছাত্রদের যেকোনো অধিকার আদায়ের আন্দোলনে সরকারি প্রশাসন ‘জঙ্গির ছায়া’ বা ‘জামায়াত-শিবির’ এর অস্তিত্ব খুঁজে পায়। আন্দোলন দমনের এ ধরনের মিথ্যা প্রোপাগান্ডা ছাত্র সমাজকে প্রতিরোধ করতে হবে।

কোটা সংস্কার আন্দোলনে ছাত্রলীগের হামলার ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের ‘কিছু জানে না- শোনেনি’ বক্তব্যকে দায়িত্বহীনতার কথা বলে মন্তব্য করেন তিনি। তিনি বলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) ছাত্র তারিকুলকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে মারাক্তকভাবে আহত করেছে ছাত্রলীগ। আন্দোলনকারীদের পরিবারের লোকজনকে গ্রেফতার-নিপীড়নের শিকার হতে হচ্ছে। এ পর্যন্ত ঢাবির ১০ জনের মতো শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন। নারী শিক্ষার্থীরা নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন।

সংবাদ সম্মেলনে তিনদফা দাবি তুলে ধরেন। এগুলো হলো- নিরাপত্তার অজুহাতে আন্দোলন দমনের জন্য আরোপিত সব অগণতান্ত্রিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা; ঢাবি ক্যাম্পাসে ঐতিহাসিকভাবে ছাত্র-জনতার জন্য উন্মুক্ত করা; হলগুলোতে ছাত্রদের সভা-সমাবেশ করার জন্য প্রভোস্টের অনুমতির সিদ্ধান্ত বতিল করা। সংবাদ সম্মেলন থেকে শুক্রবার (১৩ জুলাই) সন্ধ্যা ৬টায় বিশ্ববিদ্যালয় টিএসসি থেকে মশাল মিছিল বের করা হবে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।