পর্নো দেখে বরখাস্ত হওয়া সেই বিজেপি নেতা উপ-মুখ্যমন্ত্রী হলেন


টাইমস অনলাইনঃ
Published: 2019-08-27 19:21:38 BdST | Updated: 2019-09-23 07:11:50 BdST

ভারতের কর্ণাটক রাজ্যে কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন জোট সরকারের পতনের পর গত ২৬ জুলাই মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন বিজেপি মনোনীত বি এস ইয়েদুরাপ্পা। দীর্ঘ এক মাস পর মন্ত্রিসভা গঠন করেছেন তিনি। এমন একজনকে তিনি উপ-মুখ্যমন্ত্রী করেছেন যিনি বিধানসভায় বসে পর্নো দেখে বরখাস্ত হয়েছিলেন।

কর্ণাটক বিধানসভায় উপ-মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব পাওয়া ওই নেতার নাম লক্ষ্মণ সাভাদি। বিধানসভায় পর্নো দেখে গোটা দেশে তোলপাড় ফেলা ওই নেতাকে মন্ত্রিসভায় আনায় বিরোধীরা স্তম্ভিত। এছাড়া দলের অভ্যন্তরেও বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় অস্বস্তিতে পড়েছে ইয়েদুরাপ্পা তথা বিজেপি।


ঘটনাটি ২০১২ সালের। কর্নাটক বিধানসভার অধিবেশন চলাকালীন পর্নোগ্রাফি দেখার অভিযোগ উঠেছিল বিধায়ক ও মন্ত্রী লক্ষ্মণ সাভাদি, সি সি পাতিল এবং কৃষ্ণ পালেমার বিরুদ্ধে। ঘটনাটি নিয়ে তখন গোটা ভারতে ব্যাপক সমালোচনা হয়।

অবশ্য অধিবেশন কক্ষে পর্নো দেখার বিষয়ে আত্মপক্ষ সমর্থন করে ওই তিন মন্ত্রী বলেছিলেন, রেভ পার্টি কেলেঙ্কারি নিয়ে বিধানসভায় আলোচনার প্রস্তুতি চলছিল, বিষয়টি জানার জন্যই পর্নো দেখছিলেন তারা। কিন্তু তাতেও বিতর্ক থামাতে না পেরে অবশেষে পদত্যাগ করতে হয়েছিল ওই তিন মন্ত্রীকে।

ইয়েদুরাপ্পার এবারের মন্ত্রিসভায় ওই তিন অভিযুক্তের মধ্যে ফের জায়গা করে নিয়েছেন লক্ষ্মণ সাভাদি। উপ-মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে পরিবহন বিভাগের দায়িত্ব পেয়েছেন তিনি। ওই ঘটনায় আরেক অভিযুক্ত সিসি পাতিলও মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন, তবে তাকে এখনো কোনো মন্ত্রণালয় বণ্টন করা হয়নি।

 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।