কাশ্মিরে শুধুমাত্র নোংরা ছবি দেখার জন্য ইন্টারনেট ব্যবহৃত হয়: জেএনইউ আচার্য


Dhaka
Published: 2020-01-19 21:59:26 BdST | Updated: 2020-09-20 13:48:06 BdST

কাশ্মিরে শুধুমাত্র নোংরা ছবি দেখার জন্য ইন্টারনেট ব্যবহৃত হয়, এছাড়া সেখানে ইন্টারনেটের আর কোন কাজ নেই।

শনিবার এমন বিতর্কিত মন্তব্য করেন ভারতের জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য ও নীতি আয়োগের সদস্য বিজয় কুমার সরস্বত।

তিনি আরও বলেন, জম্মু ও কাশ্মিরে ইন্টারনেট বন্ধ থাকায় তা সেখানকার অর্থনীতিতে কোন প্রভাব ফেলেনি।

গুজরাতের গাঁধীনগরে ধীরুভাই অম্বানী ইনস্টিটিউট অব ইনফরমেশন অ্যান্ড কমি‌উনিকেশন টেকনলজি (ডিএআইআইসিটি)-র বার্ষিক সমাবর্তনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘‘ওখানে ইন্টারনেট না থাকলে কী এমন পার্থক্য হবে। আর তা ছাড়া, ইন্টারনেটে ওখানে কী দেখা হয়? ওখানে কি ই-টেলিং (ইন্টারনেটের মাধ্যমে জিনিসপত্র বেচা) হচ্ছে! নোংরা ফিল্ম দেখা ছাড়া ওখানে আর কিছু করা হয়কি?’’

তিনি আরও বলেন, শুধুমাত্র দিল্লির মতোই আন্দোলন বিক্ষোভ করার জন্যই কাশ্মীরে যেতে চান রাজনীতিবিদরা। দিল্লির রাস্তায় যেমন আন্দোলন চলছে, সেটাই কাশ্মীরের রাস্তায় তুলে আনতে চান। আর সোশ্যাল মিডিয়াও রয়েছে তাকে আগুনের মতো ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য।

উল্রেখ্য, গত বছরের ৫ আগস্ট ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিল করার পর কাশ্মিরে কঠোর কড়াকড়ি আরোপ করা হয়। এতে ১৪৪ ধারা জারি করা সহ স্কুল-কলেজ-সরকারি অফিস বন্ধ রাখা হয়। সেই সঙ্গে ল্যান্ডলাইন, মোবাইল এবং ইন্টারনেট বন্ধ করে দেয়া হয়। জম্মুতে সপ্তাহখানেক পর মোবাইল ইন্টারনেট ব্যতিত অন্যান্য সেবা শুরু হলেও কাশ্মিরে তা দীর্ঘ দিন বন্ধ থাকে। পাঁচ মাস বন্ধ থাকার পর কাশ্মিরে প্রিপেইড মোবাইল সেবা চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেখানকার প্রশাসন।