গ্লোবাল আইসিটি এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড পেল দেশের ৬ প্রতিষ্ঠান


Dhaka
Published: 2020-11-21 18:55:51 BdST | Updated: 2020-11-30 11:25:10 BdST

তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে বাংলাদেশের মানুষের জীবন-মানের উন্নয়নের স্বীকৃতি হিসেবে 'গ্লোবাল আইসিটি এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড-২০২০' পেয়েছে বাংলাদেশের ছয়টি প্রতিষ্ঠান। ওয়ার্ল্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সার্ভিস অ্যালায়েন্স (উইটসা) এবার নির্ধারিত ১০ বিভাগে বিজয়ী, ১০টি রানারআপ ও ২১টি মেরিট পুরস্কার ঘোষণা করেছে। এর মধ্যে বাংলাদেশ ৪টি বিভাগে রানারআপ ও ২টি বিভাগে মেরিট পুরস্কার পেয়েছে।

ডব্লিউআইটিএসএ বা উইটসা হলো বিশ্বের তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পের শীর্ষস্থানীয় স্বীকৃত আন্তর্জাতিক সংস্থা। বিশ্বের ৮০টির বেশি দেশ এর সদস্য। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে এক অনুষ্ঠানে উইটসার পুরস্কার ঘোষণা করেছে। মালয়েশিয়ায় গত বুধবার শুরু হয়েছে তিন দিনের ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস অব ইনফরমেশন টেকনোলজি (ডব্লিউসিআিইটি) সম্মেলন। সম্মেলনের দ্বিতীয় দিন পুরস্কার ঘোষণা করা হয়।

এবার বাংলাদেশ থেকে পুরস্কার বিজয়ীরা হচ্ছে কোভিড ১৯ টেক সলিউশনস ফর সিটিজ অ্যান্ড লোকালিটিজ বিভাগে সিনেসিস আইটি লিমিটেড ও তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের এটুআই প্রকল্প, পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ বিভাগে সরকারের ইনোভেশন ডিজাইন অ্যান্ড এন্ট্রাপ্রেনিউরশিপ একাডেমি (আইডিয়া) প্রকল্প, ইনোভেটিভ ই-হেলথ সলুসনস বিভাগে মাইসফটের মাই হেলথ বিডি, ভার্চ্যুয়াল হসপিটাল অব বাংলাদেশ, ই-এডুকেশন অ্যান্ড লার্নিং বিভাগে বিজয় ডিজিটাল। মেরিট পুরস্কার হিসেবে ডিজিটাল অপরচুনিটি অর ইনক্লুশন বিভাগে নগদ এবং সাসটেইনেবল গ্রোথ বিভাগে ডিভাইন আইটি লিমিটেডের প্রিজম ইআরপি।

ওয়ার্ল্ড আইটি সার্ভিসেস অ্যালায়েন্স (উইটসা) প্রতিবছর এই পুরস্কারের আয়োজন করে থাকে। তথ্যপ্রযুক্তি খাতে একে সম্মাজনক পুরস্কার হিসেবে বিবেচনা করা হয়। এবারের পুরস্কার সম্পর্কে উইটসা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, চলতি বছর যেসব সংস্থা মানবজাতির জন্য সর্বাধিক উল্লেখযোগ্য অবদান রেখেছে তাদের পুরস্কারের জন্য বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে।

উইটসার ওয়েবসাইটে চেয়ারম্যান ইভোন চু বলেছেন, উইটসার ২০ বছরের ইতিহাসে কখনোই এর বেশি মানসম্মত দক্ষ, অনন্য এবং উল্লেখযোগ্য প্রতিষ্ঠান ও প্রকল্প পর্যালোচনার সুযোগ পাইনি।

উইটসার সবচেয়ে জনপ্রিয় কর্মসূচি হচ্ছে গ্লোবাল আইসিটি এক্সিলেন্স পুরস্কার। ২০ বছর আগে তাইপেতে আইটি ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে এ পুরস্কার প্রবর্তন শুরু হয়। বৈশ্বিক তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পের প্রভাবশালী কণ্ঠস্বর বিবেচনা করা হয় উইটসাকে। অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড থেকে শুরু করে বাংলাদেশ, মালয়েশিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, নাইজেরিয়া, আর্জেন্টিনা, কানাডার মতো দেশ এর সদস্য। বিশ্বের প্রতিটি কোনো থেকে উদ্ভাবনী প্রতিষ্ঠানকে তুলে আনতে কাজ করে সংস্থাটি।

বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি (বিসিএস) তথ্যপ্রযুক্তি খাতের বিশ্ব সংগঠন উইটসার সদস্য। পুরস্কারের জন্য এ বছর বাংলাদেশ থেকে বিসিএস বেশ কয়েকটি বিভাগে মনোনয়ন জমা দেয়।

পুরস্কার জেতায় ‘নগদ’-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর এ মিশুক গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে বলেন, উইটসার কাছ থেকে পাওয়া স্বীকৃতি অবশ্যই নতুন কিছু উদ্ভাবনে ‘নগদ’-কে আরও উৎসাহিত করবে।

মাই হেলথ বিডির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. মনজুরুল হক বলেন, করোনাকালে ভার্চ্যুয়াল হাসপাতাল সেবা হিসেবে মাই হেলথ বিডির জন্য বড় অর্জন উইটসা পুরস্কার। এর মাধ্যমে বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তির অর্জন সারা বিশ্বের কাছে পৌঁছাবে।