ছাত্রীর তথ্যের গড়মিলে দোষী শনাক্তে বিলম্ব: চবি প্রক্টর


CU Correspondent | Published: 2022-07-25 17:32:01 BdST | Updated: 2022-10-05 18:24:17 BdST

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) হেনস্তার শিকার ছাত্রী প্রথমে ভুল তথ্য দিয়েছেন। যার কারণে দোষী শনাক্তে বিলম্ব হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. রবিউল হাসান ভূঁইয়া।

সোমবার (২৫ জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য দপ্তরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী তার অভিযোগে প্রথমে বলেছিলেন প্রীতিলতা হলের পাশ থেকে অভিযুক্তরা তাকে আড়ালে নিয়ে যায়। কিন্তু তদন্ত চলাকালে তিনি জানিয়েছেন, ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলের পেছনের গলি বা ছোট রাস্তার পাশে ফাঁকা জায়গায় বন্ধুসহ বসে ছিল। পরে সেখানে গিয়ে অভিযুক্তরা তাদের মারধর ও ভিডিও ধারণ করে।’

প্রক্টর আরও বলেন, ‘সরেজমিনে দেখা যায়, প্রীতিলতা হল থেকে বোটানিক্যাল গার্ডেনের দিকে মিনিট পাঁচেক হাঁটলেই ফজিলাতুন্নেছা হল। তার পেছনে ছোট একটি পাহাড়ি রাস্তা ও জঙ্গলের পর ওই ফাঁকা জায়গার অবস্থান।’

ড. রবিউল হাসান বলেন, ‘ঘটনাস্থল মূল রাস্তা থেকে ভেতরে হওয়ায় সেখানে স্বাভাবিকভাবেই কোনো সিসিটিভি ক্যামেরা নেই। ফলে আমাদের কিছুটা দূরের প্রীতিলতার হলের দুপাশের রাস্তায় থাকা ক্যামেরার ফুটেজ পরীক্ষা করতে হচ্ছে। ভুক্তভোগীর স্টেটমেন্ট ভুল হওয়ায় আমরা প্রথমে সিসিটিভি ফুটেজের সঙ্গে মেলাতে পারিনি। এজন্য দোষী ব্যক্তিদের শনাক্ত করতেও দেরি হয়েছে।’

রোববার (১৭ জুলাই) বন্ধুর সঙ্গে হাঁটতে বেরিয়ে যৌন হেনস্তার শিকার হন চবির এক ছাত্রী। ওই সময় তার বন্ধুকেও মারধর করা হয়। রাত ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রীতিলতা হল থেকে বোটানিক্যাল গার্ডেনে যাওয়ার রাস্তায় এ ঘটনা ঘটে।