চবিতে কোটায় ভর্তির সাক্ষাৎকারের সময়সূচি ঘোষণা


CU Correspondent | Published: 2022-09-12 19:30:13 BdST | Updated: 2022-11-30 14:18:08 BdST

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) বিভিন্ন ইউনিট/উপ-ইউনিটে কোটায় ভর্তির সাক্ষাৎকার আগামী ১৮ সেপ্টেম্বর (রোববার) থেকে শুরু হবে। এদিন সকাল ১০টা থেকে সাক্ষাৎকার শুরু হবে। যা আগামী ২০ সেপ্টেম্বর (মঙ্গলবার) পর্যন্ত চলবে।

সোমবার (১২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা কমিটির সদস্য সচিব এসএম আকবর হোসাইন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে, এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

তিনি বলেন, সব ইউনিট এবং উপ-ইউনিটে কোটায় ভর্তির সাক্ষাৎকার আগামী ১৮ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে। নিম্ন সময়সূচি অনুযায়ী ভর্তির সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠিত হবে।

কোটায় ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের যে সকল কাগজপত্র/ডকুমেন্টস/সনদ নিয়ে আসতে হবে:

১। পূর্বনির্ধারিত সময়সূচির (০৭ সেপ্টেম্বর থেকে ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২) মধ্যে অনলাইনে পূরণকৃত এবং ডাউনলোডপূর্বক ‘শিক্ষার্থীর বিভাগ/ইন্সটিটিউট পছন্দক্রম: (Choice List) তালিকা’ পরীক্ষার্থীর স্বাক্ষরসহ ২ কপি

২। ডাউনলোডকৃত ‘ভর্তি পরীক্ষার প্রবেশপত্র’ পরীক্ষার্থীর স্বাক্ষরসহ ২ কপি

৩। পরীক্ষার্থীর ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল বিবরণী (শারীরিক প্রতিবন্ধী কোটায় ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী ব্যতীত) ২ কপি

৪। পরীক্ষার্থীর এইচএসসি/সমমান পরীক্ষার মার্কশিট, সার্টিফিকেট বা প্রশংসাপত্র ও রেজিস্ট্রেশন কার্ডের মূল কপি এবং এক সেট ফটোকপি

৫। পরীক্ষার্থীর এসএসসি/সমমান পরীক্ষার মার্কশিট, সার্টিফিকেট বা প্রশংসাপত্র ও রেজিস্ট্রেশন কার্ডের মূল কপি এবং এক সেট ফটোকপি

৬। এক কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবিসহ স্ব স্ব কোটার ক্ষেত্রে ভর্তি নির্দেশিকায় বর্ণিত প্রযোজ্য সংশ্লিষ্ট কাগজপত্রের মূল কপি এবং এক সেট ফটোকপি

কোন পরীক্ষার্থী একাধিক ইউনিট/উপ-ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে তাদের সংশ্লিষ্ট সকল ইউনিট/উপ-ইউনিটের কোটার সাক্ষাৎকারে আলাদাভাবে অংশগ্রহণ করতে হবে। এক্ষেত্রে সে সকল শিক্ষার্থীদের উপরে ১ থেকে ৬ নং ক্রমিকে বর্ণিত সংশ্লিষ্ট কাগজপত্র/সনদ/ডকুমেন্ট এর আলাদা আলাদা সেট সঙ্গে রাখতে হবে।

মুক্তিযোদ্ধা কোটায় আসন শূন্য থাকা সাপেক্ষে মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের পুত্র/কন্যার পুত্র/কন্যাদের (নাতি-নাতনি অর্থাৎ FFQ2) সাক্ষাৎকারে ডাকা হবে। এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি পরবর্তীতে প্রচার করা হবে।

কোটায় উত্তীর্ণ ভর্তিচ্ছু কোন শিক্ষার্থী সাক্ষাৎকারের দিন (নির্দিষ্ট সময়ে) অনুপস্থিত থাকলে তার ভর্তির প্রার্থিতা বাতিল বলে গণ্য হবে। এ সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্যাদি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তির ওয়েবসাইটে (https://admission.cu.ac.bd) পাওয়া যাবে এবং প্রয়োজনে ভর্তি নির্দেশিকায় উল্লিখিত হটলাইন/ হেল্প-লাইন নম্বরে যোগাযোগ করা যাবে।

এর আগে, গত ১৬ আগস্ট থেকে শুরু হয়ে ২৪ আগস্ট পর্যন্ত চবির ২০২১-২২ সেশনের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এবারের ভর্তি পরীক্ষায় আবেদন করা ১ লাখ ৪৩ হাজার ৭২৭ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে অনুপস্থিত ছিলেন ৪৩ হাজার ৪১৮ জন। যা মোট ভর্তি পরীক্ষার্থীর ৩০ দশমিক ২১ শতাংশ। সবচেয়ে বেশি অনুপস্থিতি ‘এ’ ইউনিটে। সব কম ‘সি’ ইউনিটে।