বিশ্বভারতী বন্ধ করে দেবো, হুমকি উপাচার্যের


ঢাকা | Published: 2021-03-19 00:53:24 BdST | Updated: 2021-04-19 04:56:47 BdST

চোরদের আড্ডার জায়গা হয়ে গিয়েছে বিশ্বভারতী। বিশ্বভারতী বন্ধ করে দেবো- এমন এক অডিও ক্লিপ ভাইরাল হয়েছে।

যাতে শান্তিনিকেতনে অবস্থিত বিশ্বভারতীর উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তীর কণ্ঠ শোনা গেছে বলে ভারতের সংবাদ মাধ্যমগুলো প্রকাশ করেছে। এমনকি ওই অডিও ক্লিপে বিশ্বভারতীর অধ্যাপকদের তিনি কটূক্তি করেছেন বলেও অভিযোগ এসেছে।

উল্লেখ্য, ১৫ মার্চ বিশ্বভারতীর অধ্যাপকদের সঙ্গে বৈঠক ছিল উপাচার্যের। আর সেই বৈঠকের একটি অডিও ক্লিপ ভাইরাল হয়েছে।

কী আছে ওই অডিও ক্লিপে? বৈঠকের শুরু থেকে চড়া মেজাজে ছিলেন উপাচার্য। একের এক অশালীন মন্তব্য, এমনকি কয়েকজন অধ্যাপকের বিরুদ্ধে চক্রান্তের অভিযোগও বাদ যায়নি।

ওই অডিও ক্লিপে তাকে বলতে শোনা যায়, বিশ্বভারতী যাতে বন্ধ হয়ে যায় সেই ব্যবস্থা আমি করে দিয়ে যাব। আমি কাউকে ধমকি দিচ্ছি না।

ওই একই অডিও ক্লিপে উপাচার্যকে বলতে শোনা গিয়েছে, বিশ্বভারতী চোর ডাকাতের আড্ডা হয়ে গিয়েছে। নইলে অনুব্রত মণ্ডল বলতে পারে উপাচার্য পাগল। আর আপনারা সেটা মেনে নেন।

প্রসঙ্গত, অনুব্রত মণ্ডল হলেন বীরভুমের তৃণমূল নেতা। যার সঙ্গে বিশ্বভারতীর পাচিল দেওয়া নিয়ে দ্বন্দ্ব চলছিল।

এর সঙ্গে উপাচার্য বলেন, আমি আসার পর থেকেই সেই সব চোর ডাকাতদের ধরছি। তাই অনেকের এতে অসুবিধা হচ্ছে। সেকারণেই আমার বিরুদ্ধে সবাই চক্রান্ত করছেন। তবে আমাকে দমিয়ে রাখা যাবে না বলে মন্তব্য করেন তিনি।

বিশ্বভারতী সূত্রে জানা গেছে, উপাচার্য যখন অধ্যাপকদের সঙ্গে উত্তেজনাকর মিটিং করছিলেন, সেই কথা রেকর্ড করে ভাইরাল করা হয়েছে। যা অনেক অধ্যাপকের কাছে অনৈতিক এবং নিন্দনীয় বিষয় বলে অভিযোগ করেছে।

তাদের মতে প্রতিষ্ঠান নিয়ে আভ্যন্তরীণ নানান কথা হয়ে থাকে। যা বাইরে ফাঁস করা সঠিক নয়। সূত্র আরো জানিয়েছে এরকম চলতে থাকলে বিশ্বভারতীর অনেক বিষয় বাইরে প্রকাশ হয়ে যাবে। যা একেবার প্রতিষ্ঠানবিরোধী কাজ। ফলে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে শোরগোল পড়ে গিয়েছে শান্তিনিকেন সহ গোটা পশ্চিমবঙ্গে।

কলকাতার আনন্দ বাজার ও সংবাদ প্রতিদিনে এ ঘটনা নিয়ে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। তবে এ অডিও ক্লিপটি বাংলানিউজ হাত পায়নি।