নোবিপ্রবির ক্যাডেট যাচ্ছে দিল্লি সফরে


NSTU Correspondent | Published: 2022-05-26 11:15:54 BdST | Updated: 2022-07-04 21:55:40 BdST

স্পেশাল ইয়্যুথ এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রাম -২০২২ উপলক্ষে ভারতের দিল্লিতে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সফরের জন্য নির্বাচিত হয়েছেন নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (নোবিপ্রবি) প্লাটুনের ক্যাডেট কর্পোরাল আহম্মেদ উল্ল্যা। বুধবার (২৫ মে) ময়নামতি রেজিমেন্ট দপ্তরের মেজর মোহাম্মদ সোলায়মান তালুকদার স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য নিশ্চিত করা হয়।

ভারতের ৭৫ বছর প্রজাতন্ত্র দিবস পূর্তি উপলক্ষে দিল্লিতে এই অনুষ্ঠান আয়োজিত হবে। বাংলাদেশের যুব রাষ্ট্রদূত হিসেবে একজন কর্মকর্তাসহ মোট ১৩ সদস্যের একটি দল এতে অংশগ্রহণ করবে। সম্পূর্ণ সরকারী খরচে তাদেরকে আবাসন, খাদ্য, যাতায়াতসহ যাবতীয় বিষয়ের তত্ত্বাবধান করবে বাংলাদেশ সরকার। দিল্লি সফরের জন্য সুযোগ পাওয়া আহম্মেদ বিশ্ববিদ্যালয়ের এডুকেশন বিভাগের ২০১৮-১৯ শিক্ষা বর্ষের শিক্ষার্থী।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কর্পোরাল আহম্মেদ দেশকালকে বলেন, এটি আমার জীবনে অনেক বড় পাওয়া। আমি আশাবাদী যে এই সফর থেকে আমি অনেক অভিজ্ঞতা অর্জন করব যা আমাকে আরো আত্মবিশ্বাসী করে গড়ে তুলবে। সার্বিক সহযোগিতার জন্য আমার প্লাটুনের পিইউও, সিইউও স্যারসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিক ভাবে ধন্যবাদ জানাই।

এ ব্যাপারে নোবিপ্রবি প্লাটুনের (পুরুষ) ক্যাডেট আন্ডার অফিসার (সিইউও) নুরুল আবছার জানান, Special Youth Exchange Programme-2022" এর দিল্লি সফরের জন্য নির্বাচিত হয়েছে। নোবিপ্রবি বিএনসিসি প্লাটুন সবসময় ক্যাডেটদের মান উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে।

আশা করি সামনের দিনগুলোতেও আমাদের ক্যাডেটরা নিজেদের মেধার স্বাক্ষর রেখে YEP প্রোগ্রামের জন্য নির্বাচিত হয়ে সাফল্যের ধারা অক্ষুণ্ণ রাখবে।

নোবিপ্রবি প্লাটুনের (পুরুষ) প্রফেসর আন্ডার অফিসার (পিইউও) এ কিউ এম সালাউদ্দিন পাঠান বলেন, প্লাটুন থেকে ব্যাটেলিয়ন, রেজিমেন্ট এবং সদর দপ্তরের প্রতিযোগিতায় উত্তীর্ণ হয়ে আমাদের ক্যাডেট যাচ্ছে ভারতে। এটা আমাদের জন্য গর্বের। আমাদের পরবর্তী ক্যাডেটরা এই সফলতা ধরে রাখবে বলে আশা করি।

বাংলাদেশ ন্যাশনাল ক্যাডেট কোর (বিএনসিসি) হল একটি আধা সামরিক সংগঠন যা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের নিয়ে গঠিত এবং বাংলাদেশ ডিফেন্স ফোর্সেস (সেনা, নৌ, বিমান) দ্বারা পরিচালিত। দেশের যেকোন ক্রান্তি ও শান্তিকালীন সর্বদা দ্বিতীয় সারির প্রতিরক্ষা স্তর হিসেবে কাজ করে বিএনসিসি।