নিজ খরচে বিশ্ববিদ্যালয়ে ৬৫০ তালগাছ লাগানো হারুন পেলেন সম্মাননা


NSTU Correspondent | Published: 2022-06-30 12:13:22 BdST | Updated: 2022-08-14 15:47:01 BdST

পরিবেশ রক্ষায় ৬৫০টি তালগাছ লাগানো নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) ভাষা শহিদ আবদুস সালাম হলের বাবুর্চি মো. হারুন অর রশিদকে সম্মাননা জানিয়েছে পরিবেশ বিজ্ঞান ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগ।

বুধবার (২৯ জুন) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের মিলনায়তনে বিশ্ব পরিবেশ দিবস উপলক্ষে বিশেষ আলোচনা সভা শেষে তার হাতে সম্মাননা স্মারক ও নগদ অর্থ তুলে দেওয়া হয়।

সম্মাননা স্মারক ও নগদ অর্থ হারুন অর রশিদের হাতে তুলে দেন পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ড. সামসুল আলম ও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার-উল-আলম।

নিজ খরচে বিশ্ববিদ্যালয়ে ৬৫০ তালগাছ লাগিয়েছেন হারুন- গত ২৬ জুন এই শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। বিষয়টি নজরে এলে পরিবেশ বিজ্ঞান ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগ তাকে সম্মাননা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।

 

হারুন অর রশিদ বলেন, সবার আগ্রহ দেখে আমার আরও গাছ লাগাতে ইচ্ছে করে। আমি এবারও অনেকগুলো গাছ লাগিয়েছি। যতদিন এই বিশ্ববিদ্যালয়ে থাকবো পুরো আনাচে-কানাচে গাছ লাগিয়ে যাবো।

বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বিজ্ঞান ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের চেয়ারম্যান ও সহযোগী অধ্যাপক মোহাম্মদ মহিনুজ্জামান বলেন, তালগাছ রোপণের ফলে আমাদের জীববৈচিত্র্য রক্ষা হবে। বজ্রপাতে মৃত্যুর সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। তালগাছ বজ্রপাত থেকে ক্যাম্পাসকে রক্ষা করবে এবং প্রাণনাশের সম্ভাবনা কমে যাবে। হারুন অর রশিদের এ অবদানের জন্য তাকে উৎসাহ দিতে সম্মাননা স্মারক ও নগদ অর্থ প্রদান করা হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার-উল-আলম বলেন, হারুন অর রশিদের আর্থিক অবস্থা খুব একটা ভালো না। অনেক পয়সা খরচ করে হারুন গাছগুলো লাগিয়েছেন। আমাদের অনেকেই তাকে সহযোগিতা করেছেন। আজকের এ সম্মাননা তাকে আরও উৎসাহিত করবে বলে মনে করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার-উল-আলম।

অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আব্দুল বাকী, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. ফারুক উদ্দিন, বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. হানিফ মুরাদ, শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. নেওয়াজ মো. বাহাদুর, পরিবেশ বিজ্ঞান ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ মহিনুজ্জামানসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।