ছাত্রলীগ নেতাকে বাস থেকে নামিয়ে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে আহত


Noakhali | Published: 2021-06-18 22:19:38 BdST | Updated: 2021-07-27 07:32:49 BdST

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাট পুরোনো বাসস্ট্যান্ডে চলন্ত বাস থেকে নামিয়ে ছাত্রলীগের এক নেতাকে হাতুড়ি ও রড দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করেছে দুর্বৃত্তরা। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত আটটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

আহত ছাত্রলীগের নেতার নাম নুর উদ্দিন ওরফে নোবেল (২৫)। তিনি চরফকিরা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের দপ্তর সম্পাদক এবং চরফকিরা ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের জিন্নাত আলী সারেং বাড়ির জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে। তিনি কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মিজানুর রহমানের অনুসারী। হামলার পর স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় তাঁকে উদ্ধার করে পরিবারের লোকজন ফেনীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করেছেন।

চরফকিরা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আশরাফ হোসেন বলেন, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে চাপরাশিরহাট বাজার থেকে নুর উদ্দিন বাসযোগে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে ফেনী যাচ্ছিলেন। রাত ৮টার দিকে বাসটি বসুরহাট অতিক্রমের সময় কাদের মির্জার একদল অনুসারী বসুরহাট পুরোনো বাসস্ট্যান্ডে তাঁকে বাস থেকে নামিয়ে হাতুড়ি ও রড দিয়ে পিটিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করেন। এ সময় নুর উদ্দিন দৌড়ে পার্শ্ববর্তী একটি মসজিদে ঢুকে যান। পরে তাঁর আত্মীয়স্বজন তাঁকে উদ্ধার করে ফেনীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করেন।

আহত ছাত্রলীগ নেতা নুর উদ্দিন নোবেল (২৫) কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মিজানুর রহমানের অনুসারী।
বিজ্ঞাপন

হাসপাতালে ছিলেন নুর উদ্দিনের মামাতো ভাই রবিন। নুর উদ্দিনের বরাত দিয়ে মুঠোফোনে তিনি  তিনি বলেন, কাদের মির্জার অনুসারীরাই নুর উদ্দিনের ওপর হামলা করেছেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের মুখপাত্র ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ভাগনে মাহবুবুর রশিদ অভিযোগ করেন, কাদের মির্জা নিজের অস্তিত্ব রক্ষার জন্য এখন তাঁর সন্ত্রাসী বাহিনী–নির্ভর হয়ে পড়েছেন। তিনি সন্ত্রাসীদের দিয়ে দলে ভিন্নমতের নেতা-কর্মীদের ওপর একের পর হামলা করাচ্ছেন। ছাত্রলীগের নেতা নুর উদ্দিনের ওপর হামলার ঘটনাও তারই ধারাবাহিকতা। তিনি হামলার ঘটনায় জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার দাবি করেন।

হামলার অভিযোগের বিষয়ে বক্তব্য জানার জন্য বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জাকে আজ শুক্রবার বিকেলে একাধিকবার ফোন দিলেও ফোন বারবার ব্যস্ত দেখায়। ভিন্ন নম্বর থেকে ফোন দিলেও তিনি ফোন ধরেননি। ফলে এ বিষয়ে তাঁর বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইফুদ্দিন আনোয়ার বলেন, নুর উদ্দিন নামের ছাত্রলীগের এক নেতার ওপর হামলার মৌখিক অভিযোগ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। কিন্তু পুলিশ গিয়ে কাউকে পায়নি। শুনেছেন, হামলায় আহত ছাত্রলীগের নেতা নুর উদ্দিনকে ফেনীর একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে এ ঘটনায় আজ শুক্রবার বিকেল পর্যন্ত থানায় লিখিত অভিযোগ করেনি পরিবার।