এক কমিটিতেই ৫ বছর পার নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের


Desk report | Published: 2022-05-10 15:49:25 BdST | Updated: 2022-05-29 05:59:39 BdST

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় (জাককানইবি) ছাত্রলীগের এক বছরের কমিটি দিয়ে পাঁচ বছর পার হয়েছে। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মী ও পদপ্রত্যাশীরা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও নিয়ে চলছে আলোচনা-সমালোচনা।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ২০১৭ সালের ৭ মে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সভাপতি মো. সাইফুর রহমান সোহাগ এবং সাবেক সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ কমিটি ঘোষণা করেন। এতে নজরুল ইসলাম বাবুকে সভাপতি ও রাকিবুল হাসান রাকিবকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়। এক বছর মেয়াদী কমিটি দিয়ে পাঁচ বছর রাজনীতি চলায় ছাত্রলীগে দেখা দিয়েছে গ্রুপিং।

দ্রুত সময়ের মধ্যে নতুন নেতৃত্ব গঠন করে সাংগঠনিক কার্যক্রম বেগবান করার দাবি জানিয়েছেন শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

বর্তমান কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ নয়ন মণ্ডল বলেন, চার বছর মেয়াদি ভিসির মেয়াদ শেষ হয়। অথচ এক বছর মেয়াদি ছাত্রলীগের কমিটির মেয়াদ শেষ হয় না।

তিনি আরও বলেন, কমিটি হয়েছে সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহিত উল আলমের সময়ে। এরপর ভারপ্রাপ্ত উপাচার্যের দায়িত্ব পালন করেন প্রফেসর ড. শামসুর রহমান। পরে ভিসি হয়ে আসেন প্রফেসর ড. এএইচএম মোস্তাফিজুর রহমান। এরপর ভিসির অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর মো. জালাল উদ্দিন এবং বর্তমান ভিসি অধ্যাপক ড. সৌমিত্র শেখর। কমিটি হওয়ার পর চারজন ভিসি চলে গেলেন অথচ কমিটি যাওয়ার নাম নেই।

শাখা ছাত্রলীগের বাংলা ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আল মাহমুদ কায়েস বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগকে গতিশীল করতে নতুন নেতৃত্বের কোনো বিকল্প নেই। অপরিবর্তিত নেতৃত্বের কারণে দিনশেষে সংগঠনই ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। অনেকেই সংগঠনের এ অচলাবস্থা দেখে ছাত্ররাজনীতি করতে ডিমোটিভেটেড হচ্ছে। তাই আমাদের অভিভাবক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের প্রতি অনুরোধ, দয়া করে আপনারা নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগকে বাঁচান। নতুন নেতৃত্ব দিয়ে প্রাণ সঞ্চার করুন। এ ক্যাম্পাসের হাজার হাজার তরুণ নেতৃত্বের আশায় চেয়ে বসে আছে।

কমিটির পাঁচ বছর পূর্ণ হওয়ায় অভিনন্দন জানিয়ে মোজাম্মেল হক অনিক তার ফেসবুক আইডিতে লিখেছেন, ‘অভিনন্দন ছয় বছরে পা রাখার জন্য। ২০১৭ সালের আজকের এ দিনে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার কমিটি হয়েছিল। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিসি পাঁচজন এলো। চারজন দায়িত্ব শেষ করলো তবুও কমিটির মেয়াদ শেষ হলো না। ২০১৭ সালে একজন ছাত্র ভর্তি হয়ে তার বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ শেষ করে ফেলেছে। কিন্তু তাদের মেয়াদ আজও শেষ হলো না। কমিটির অনেকেই সরকারি চাকরি করছে। অনেকেই ক্যাম্পাস থকে চলে গেছে। এভাবে চলতে থাকলে এক সময় ছাত্রলীগ কর্মী শূন্য হয়ে যাবে।’

কবির আহমেদ শাকিব নামে একজন লিখেছেন, ‘সম্মেলন ৩ মে ২০১৭। আহা সময়, যার কোনো মূল্য নাই... পাঁচ বছর এক কমিটি কেমনে থাকে? আমাদেরও পরিবার আছে, তাদেরও আমাদের প্রতি আশা ভরসা আছে। আমরা কিছুই করতে পারছি না তাদের জন্য।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম বাবু বলেন, করোনার কারণে আমাদের কমিটির সময়টা একটু বেশি হয়ে গেছে। তবে সাংগঠনিক কিছু কাজ আছে। এগুলো শেষ করার পর কমিটি দিলে আমরা দায়িত্ব হস্তান্তর করবো।