শেকৃবিতে সম্মেলন: ছাত্রলীগের শীর্ষ দুই পদে আলোচনায় যারা


Desk report | Published: 2022-06-25 10:10:01 BdST | Updated: 2022-08-14 15:49:09 BdST

রাজধানীর শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (শেকৃবি) ছাত্রলীগের সম্মেলন হতে যাচ্ছে ২৯ জুন। সম্মেলনকে সামনে রেখে বিশ্ববিদ্যালয়ে রাজনৈতিক নেতাকর্মীরা ব্যস্ত সময় পার করছেন। রাজনৈতিক আবহে উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। একইসঙ্গে চলছে মিছিল, মিটিং, শোডাউন।

সম্মেলনের দিন যত ঘনিয়ে আসছে ততই পদ প্রত্যাশী নেতাদের দৌড়ঝাঁপ বেড়ে যাচ্ছে। ক্যাম্পাসের পাশাপাশি বিভিন্নভাবে লবিং-তদবিরও থেমে নেই। শীর্ষপদে আসার জন্য কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ থেকে শুরু করে নেতারা মধুর ক্যান্টিন, আওয়ামী লীগের দলীয় অফিসে ধারণা দিচ্ছেন। অনেকেই আবার সাবেক ছাত্রলীগ নেতা এবং আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতাদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছেন।

শেকৃবি ছাত্রলীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক পদে নেতৃত্বে আসার জন্য আলোচনায় রয়েছেন আল নাহিয়ান খান জয়ের অনুসারী হাবিবুর রহমান, মেহেদি হাসান (রিকি), রতন রহমান, রিওন সরকার, শামীম আল মামুন, মাহামুদুল কবির রুমন, জামিউল আলম পরশ, ,রাফসান রাফায়েত। তারা নিজ নিজ কর্মী এবং তাদের সঙ্গীয় সিনিয়র জুনিয়রদের নিয়ে কার্যক্রম চালাচ্ছেন।

লেখক ভট্টাচার্যের অনুসারীদের মধ্যে রয়েছেন- রুদ্র নাথ টুটন, এস.এম সজীব হোসাইন, অনিক হাসান দূর্জয়, মাসুদ আলম, মেহেদী হাসান নান্নু, তাওফিক-ই-মাওলা।

শেকৃবি ছাত্রলীগের ১ নম্বর সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুর রহমান বলেন, ‘আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করে রাজনীতি করি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা মেনে রাজনীতি করি। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত। আমি আশাবাদী নেতৃত্বে আসার ব্যাপারে। ক্যাম্পাসে যতটুকু ছাত্র রাজনীতি করা দরকার তার সবটুকুই আমার সর্বোচ্চ পরিশ্রম দিয়ে করে যাচ্ছি।’

নেতৃত্বে আসতে পারলে ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে হাবিবুর রহমান বলেন, ‘কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ আমাকে দায়িত্ব দিলে সবাইকে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে সুসংগঠিত হবো। আমাদের ছোট ৮৭ একরের এ ক্যাম্পাসকে সব ধরনের অরাজকতা, বিশৃঙ্খলা এবং মাদকমুক্ত রেখে শিক্ষার্থীবান্ধব পরিবেশ গড়ে তুলবো। শিক্ষার্থীদের সব যৌক্তিক দাবি দাওয়া মেটানোর জন্য কাজ করবো। ছাত্রলীগ শিক্ষার্থীদের পাশে সবার আগে সবসময় ছিল, আছে, থাকবে।’

শেকৃবি ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রতন রহমান বলেন, ‘আমি আত্মবিশ্বাসী। আশা রাখি কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ আমাকে মনোনীত করবে। তবে যেহেতু নেত্রী বলছেন আগে ছাত্র পরে লীগ, সেক্ষেত্রে আমি চাইবো নিয়মিত ছাত্র থেকে যেন নেতৃত্বে আসুক।’

শেকৃবি ছাত্রলীগের দপ্তর সম্পাদক মেহেদী হাসান নান্নু বলেন, ‘ছাত্রলীগের সব স্তরের কর্মী এবং সাধারণ শিক্ষার্থীরা সৎ, যোগ্য, মেধাবী এবং বঙ্গবন্ধুর আদর্শের একজন ছাত্র নেতা হিসেবে চায়। আমি নিজেকে এ হিসেবেই গড়ে তুলেছি। দায়িত্ব পেলে শেকৃবি ছাত্রলীগকে একটি শক্তিশালী ও আইকনিক ইউনিট হিসেবে গড়ে তুলতে সর্বাত্মক চেষ্টা করবো।’