ঢাবি ভর্তি পরীক্ষায় শিক্ষক সেজে ১০ মোবাইল ফোন ছিনতাই


DU Correspondent | Published: 2024-03-01 23:55:57 BdST | Updated: 2024-04-22 05:29:52 BdST

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) বিজ্ঞান ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় শিক্ষক সেজে ভর্তিচ্ছুদের ১০ মোবাইল ফোন ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার (০১ মার্চ) সাড়ে ১০ টার দিকে ঢাবির মোকাররম ভবনে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ছিনতাইকারীর নাম পরিচয় জানা যায়নি।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা হলেন, তোফায়েল আহমেদ তুষার, ইমরুল হাসান, আব্দুল্লা আল মুফিদ, রাফিদ রহমান মাহিন, শেখ জান্নাত, হাসিবুল হাসান। পরীক্ষা শেষে পরীক্ষকের নিকট ও শাহবাগ থানায় সহযোগিতা চাইলে কোনো ধরনের সহযোগিতা পাননি বলে জানান ভুক্তভোগীরা।

জানা যায়, ১০টা বেজে যাওয়ার পর শিক্ষার্থীরা মোকাররম ভবনে প্রবেশ করে। ছিনতাইকারী তখন সাদাকালো ফরমাল ড্রেসকোড পড়ে মোকাররম ভবনের ফ্লোর ও বিভিন্ন রুমে গিয়ে শিক্ষক পরিচয় দেয়। একইসাথে পরীক্ষা সংক্রান্ত দিকনির্দেশনা দিয়ে কয়েকজনের মোবাইল ফোন জমা নেন এবং পরীক্ষা শেষে নিয়ে যাওয়ার কথা বলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে এমন ঘটনায় উদ্বিগ্ন শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী তোফায়েল আহমেদ তুষার বলেন, পরীক্ষা শুরু হওয়ার আগে লাইব্রেরির সাথে ২য় বর্ষের রুমে ঢুকে এক ব্যক্তি শিক্ষক পরিচয় দেয়। যেহেতু মোবাইল ফোন নিয়ে পরীক্ষা দেওয়া যাবে না তাই মোবাইল গুলো ওনার কাছে রাখার জন্য বলেন। ওনি আমাদের কাছ থেকে নাম,মোবাইল নাম্বার নিয়ে আমাদের কাছ থেকে মোবাইল নিয়ে যায়। আমরা পরীক্ষা দিয়ে রোম থেকে বের হয়ে দেখি ওই লোক আর নেই।

হাসিবুল হাসানে মা বলেন, আমি টাঙ্গাইল থেকে আমার ছেলেকে ভর্তি পরীক্ষা দিতে পাঠিয়েছি। এমন ঘটনা আমাদের অভিভাবকদের জন্য দুশ্চিন্তার কারণ। বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে ব্যর্থ হয়েছে।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী আব্দুল্লাহবাল মুফিদ বলেন, ৬ তলায় ওই ব্যক্তি আমাকে ফোন দিতে বলে। আম ড্রেস দেখে দিয়ে দেই। পরীক্ষা শেষে তাকে খুঁজে পাচ্ছিলাম না। পরে শুনি আমার সাথে আরও কয়েকজনের ফোন চুরি হয়েছে। আমরা একটা অ্যাপ্লিকেশন দিয়েছিলাম কিন্তু তখন জমা নেওয়া হয়নি। শাহবাগ থানায় জিডি করতে গেলাম তিন ঘন্টা থেকেও সেখানে কোনো ধরনের সহযোগিতা পাইনি।

এ বিষয়ে প্রক্টর অধ্যাপক ড. মো. মাকসুদুর রহমান বলেন, আমি বিষয়টি জানতে পেরেছি। আমরা সিসিটিভি ফুটেজ দেখে বের করবো কে এই কাজটা করেছে। এটা বের না করলে আমাদের ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়াবে।