অপ্রয়োজনে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভবন নির্মাণ না করার পরামর্শ ইউজিসির


Desk report | Published: 2022-12-01 19:02:15 BdST | Updated: 2023-02-03 16:36:59 BdST

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক, প্রশাসনিক ও আবাসিক ভবন নির্মাণের বিষয়টি প্রয়োজন ও অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাবে (ডিপিপি) অন্তর্ভুক্ত করার পরামর্শ দিয়েছেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) সদস্য প্রফেসর ড. মো. আবু তাহের। একই সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন প্রকল্পসমূহ নির্দিষ্ট সময়ে ও পরিকল্পনা মাফিক বাস্তবায়নের পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। এসব প্রকল্পের কাজ যথাসময়ে সম্পন্ন করতে তদারকি জোরদার করবে ইউজিসি।

বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) ইউজিসি অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২২-২৩ অর্থবছরের বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি (এপিএ) মোতাবেক কর্মসম্পাদন, প্রমাণক সংরক্ষণ ও কমিশনে প্রেরণ সংক্রান্ত কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ পরামর্শ দেন তিনি।

 

প্রফেসর আবু তাহের আরও বলেন, উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় উল্লেখযোগ্য সংখ্যক পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও শিক্ষার্থীদের জন্য আবাসিক ভবন ও হল নির্মাণ করা হচ্ছে। সরেজমিনে দেখা গেছে, কোনো কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকদের জন্য নির্মিত বহুতল ভবনের বেশিরভাগ ফ্ল্যাটই খালি পড়ে আছে। অন্যদিকে আবাসিক সঙ্কটের কারণে শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসের বাইরে থাকতে বাধ্য হচ্ছে।

উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নে অনিয়ম এবং ধীর গতি সম্পর্কে তিনি বলেন, অনেক বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রকল্পের কাজ নির্দিষ্ট সময়ে শেষ হচ্ছে না। এ ক্ষেত্রে তারা বারবার সময় ও ব্যয় বৃদ্ধির জন্য আবেদন করছেন। এতে সরকারের ব্যয় বেড়ে যাচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষ ও সংশ্লিষ্ট শিক্ষক-কর্মকর্তারা অনিয়মে জড়িয়ে পড়েছেন। শিক্ষকদের বিরুদ্ধে এ সব অনিয়মের তদন্ত অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক।

কর্মশালায় অংশ নেন ১৫টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকল্প পরিচালক ও ইউজিসি’র সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

//