এলএলবির ফাইনাল পরীক্ষার হলে নকলের ছড়াছড়ি, বহিষ্কার ১৫ শিক্ষার্থী


Desk report | Published: 2023-11-11 11:43:54 BdST | Updated: 2024-02-27 09:28:52 BdST

এলএলবির ফাইনাল পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বনের অভিযোগে ১৫ জন পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে। শুক্রবার (১০ নভেম্বর) কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজ কেন্দ্র থেকে তাদের বহিষ্কার করা হয়।

জানা যায়, শুক্রবার ছিল এলএলবি ফাইনাল পরীক্ষা। ভিক্টোরিয়া কলেজ ডিগ্রি শাখার পরীক্ষা ভবনে ছিল বঙ্গবন্ধু ল’ কলেজ ও কুমিল্লা ল’ কলেজের কেন্দ্র। অধিকাংশ পরীক্ষার্থী মোবাইল ফোন নিয়ে কক্ষে প্রবেশ করেছেন। অনেকের সঙ্গে ছিল আইনবিষয়ক বইয়ের বিভিন্ন পাতা, ছেঁড়া টুকরা। কয়েকজন পুরো গাইড নিয়ে পরীক্ষার কক্ষে প্রবেশ করেছেন।

তাছাড়া পরীক্ষা ভবনের নিচতলা ও দ্বিতীয় তলার চারটি টয়লেটে দেখা গেছে বইয়ের পাতা, ছেঁড়া অংশ ও হাতে লেখা চিরকুট। ভবনের পেছনে টয়লেটের সেপটিক ট্যাংকে অবস্থান করতে দেখা গেছে পরীক্ষার্থীদের বন্ধু ও স্বজনদের।

পরীক্ষা শেষ হয়েছে সাড়ে ১২টায়। বেলা একটায় বহিষ্কৃত এক নারী পরীক্ষার্থীকে দেখা যায় পরীক্ষা ভবনের বারান্দায় উপাধক্ষের পা ধরে আছেন। কান্না করছেন আরো দু'জন নারী পরীক্ষার্থী।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কুমিল্লা ল’ কলেজের বহিষ্কৃত একজন শিক্ষার্থী বলেন, এলএলবি পরীক্ষায় দেখাদেখি করে সবাই লেখে। এটা সারাদেশে সব কেন্দ্রে চলে। ভিক্টোরিয়া ব্যতিক্রম। নকল বন্ধ করলে আপনারা সারাদেশে বন্ধ করেন।

কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত সচিব ও ভিক্টোরিয়া কলেজের সংস্কৃত বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক যীতেন্দ্রনাথ তরফদার জানান, এ কেন্দ্রে দুটি প্রতিষ্ঠানের ২৯১ জন পরীক্ষার্থীর আসন রয়েছে। আজ ১৮৫ জন পরীক্ষায় উপস্থিত হয়েছে। হাতেনাতে নকলসহ আমরা ১৫ জনকে ধরেছি। যার মধ্যে বঙ্গবন্ধু ল’ কলেজের চারজন ও কুমিল্লা ল’ কলেজের ১১ জন শিক্ষার্থীকে একবছরের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে। পরীক্ষার হলে যার সঙ্গে যে কাগজ পেয়েছি, তা মূল কাগজের সঙ্গে রেখে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠানো হয়েছে।

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজ অধ্যক্ষ ও কেন্দ্র প্রধান প্রফেসর ড. আবু জাফর খান বলেন, ভিক্টোরিয়া কলেজ নকল মুক্ত। নকল করতে হলে কেন্দ্র স্থানান্তর করতে হবে। ভিক্টোরিয়ার ঐতিহ্যের সঙ্গে নকল চলে না। পরের পরীক্ষায় আমরা আরো কঠোর হবো।

//