কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক নাট্য উৎসব শুরু


Aslam Begg | Published: 2024-02-20 16:34:32 BdST | Updated: 2024-04-22 05:27:39 BdST

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. সৌমিত্র শেখর বলেছেন, নাটক নিশ্চয়ই আমরা একটা জায়গায় করি। কিন্তু নাটকের ভাষা হচ্ছে আন্তর্জাতিক। প্রকৃত নাটক আমাদের প্রচলিত ভাষা তার বাইরে আর একটি ভাষা তৈরি করে। যা নাটকের ভাষা। নতুন একটি বার্তা দেয়। নাটকের এই ভাষা সার্বজনীন। কোনো কিছু না থাকার মধ্যেও অনেককিছু বলা এটি নাট্যকর্মীরাই বলতে পারে।

মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) সকালে চুরুলিয়া মঞ্চে ২য় আন্তর্জাতিক নাট্য উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ‘বিশ্বসাথে যোগে যেথায় বিহারো, সেইখানে যোগ তোমার সাথে আমারও’Ñবিশ্বকবির পঙইতমালায় সুর মিলিয়ে আয়োজিত এই নাট্যবিহার চলবে ২০ থেকে ২৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। ছয়দিনব্যাপী উৎসবে ভারত ও বাংলাদেশের নাট্যদল তাদের প্রযোজনা উপস্থাপন করবেন।

আন্তর্জাতিক নাট্য উৎসব প্রসঙ্গে উপাচার্য বলেন, আন্তর্জাতিক নাট্য উৎসবের একটা পরিপ্রেক্ষিত আছে। এই আয়োজনটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। দ্বিতীয়বারের মতো আয়োজন হচ্ছে। আমরা আশা করবো আগামীবার এরচেয়েও বৃহৎ পরিসরে নাট্য উৎসব আয়োজন করা হবে।

এবারের উৎসবে দেশের প্রখ্যাত নাট্যজন ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মামুনুর রশীদকে সম্মাননা প্রদান করা হয়। সম্মননাপ্রাপ্ত মামুনুর রশীদ সম্পর্কে উপাচার্য বলেন, নাট্য জগতের একজন কর্মী ও দার্শনিক ব্যক্তি মামুনুর রশীদ। তিনি দর্শনের কথা বলেন, তিনি নিজে কাজ করেন। তিনি বলেন না এগিয়ে চল/আমরা আছি তোমার পিছে’ বরং তিনি বলেন, এগিয়ে চলি/তোমরা এসো আমার পিছে’। এই মানুষটি ওই আদর্শ ধারণ করেন যেটি ধারণ করতে প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার; যেটি ধারণ করতে ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনকারীরা। এমন একটি গুণী মানুষকে সম্মাননা দিতে পেরে নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার ধন্য।

নাট্যকলা ও পরিবেশনা বিদ্যা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ড. মো. কামাল উদ্দীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন রবীন্দ্র ভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য প্রফেসর ড. পবিত্র সরকার, নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর ড. আতাউর রহমান, কলা অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মুশাররাত শবনম, রেজিস্ট্রার কৃষিবিদ ড. মো. হুমায়ুন কবীর। এসময় বিশ্ববিদ্যালয় ও বিভাগের অন্য শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. সৈয়দ মামুন রেজা। সঞ্চালনা করেন মাজহারুল হোসেন তোকদার।

উল্লেখ্য,০৩টি ভারতীয় নাট্য প্রযোজনাসহ মোট ০৬টি নাটকের প্রদর্শনী হতে যাচ্ছে এই উৎসবে। উদ্বোধনী নাটক হিসাবে পশ্চিমবঙ্গের নাট্যদল ইন্ডিয়ান মাইম থিয়েটার প্রযোজিত Based on a false story মঞ্চায়িত হবে ২০ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৭টায়। নাটকটি নির্দেশনা দিয়েছেন সুরুজ বিশ্বাস ও মধুরিমা গোস্বামী। এছাড়াও অন্যান্য প্রযোজনাগুলো হচ্ছে নাট্যকলা ও পরিবেশনা বিদ্যা বিভগের শিক্ষার্থী নির্দেশক অপূর্ব চক্রবর্তীর নির্দেশনায় রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের নৃত্যনাট্য বিসর্জন, সাকলাইন আরাফাত নির্দেশিত হাবিব জাকারিয়া রচিত নাটক মোমডানা এবং ফুয়াদ হাসান পার্থ নির্দেশিত শম্ভুর ডায়েরি, ভারতের গোবরডাঙ্গা নকশা প্রযোজিত হিন্দি ভাষার নাটক Yes এবং শেষ দিন আশিষ দাস নির্দেশিত ভারতের নাটক আশ্চর্য মানুষ। প্রতিদিন সন্ধ্যা ০৭:০০ টায় কলা ভবনের জিয়া হায়দার থিয়েটার ল্যাবে পরিবেশিত হবে প্রযোজনাসমূহ।