বাকৃবি শিক্ষক সমিতির অভিষেক অনুষ্ঠিত


Likhan Islam | Published: 2024-02-28 23:31:52 BdST | Updated: 2024-04-22 06:35:48 BdST

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) শিক্ষক সমিতি ২০২৪ কার্যনির্বাহী কমিটির অভিষেক ও বাজেট সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কমিউনিটি সেন্টারে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

বাকৃবি শিক্ষক সমিতির ২০২৪ কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. রফিকুল ইসলাম সরদারের সভাপতিত্বে এবং বিদায়ী সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান পৃষ্ঠপোষক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাকৃবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমদাদুল হক চৌধুরী। সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাকৃবির সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ারুল ইসলাম, বাকৃবির সাবেক উপাচার্য ও ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. এম. এ সাত্তার মন্ডল এবং ইউজিসি অধ্যাপক ড. সচ্চিদানন্দ দাস চৌধুরী। এছাড়াও এই সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদ, বিভাগ ও ইনস্টিটিউটের শিক্ষকগণ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে বাকৃবি শিক্ষক সমিতি ২০২৩ কমিটির বার্ষিক প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন বিদায়ী সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম। এসময় তিনি ২০২৩ সালের কমিটির ১৯ টি অর্জন সবার সামনে তুলে ধরেন। এরপর ২০২৪ কমিটির সকল সদস্যকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেয়া হয়। পরবর্তীতে অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন বাকৃবি শিক্ষক সমিতির ২০২৪ কার্যনির্বহী কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. রফিকুল ইসলাম সরদার এবং সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মো. আসাদুজ্জামান সরকার

বার্ষিক প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ২০২৩ কমিটিতে শিক্ষক সমিতির মোট আয় ছিলো ৫৮ লাখ ৫৩ হাজার ৮১৪ টাকা এবং ৫৭ লাখ ৬৬ হাজার ৩১৭ টাকা ব্যয় করে উদ্বৃত্ত ছিলো ৮৭ হাজার ৪৯৭ টাকা। শিক্ষক সমিতির এ বছর বিভিন্ন খাত থেকে আয় হিসেবে ১৬ লাখ ৩৯ হাজার ৮৮৬ টাকা ও ব্যয় হিসেবে ১৬ লাখ ২৭ হাজার টাকা ধরে ৩২ লাখ ৬৬ হাজার ৮৩৬ টাকার বাজেট প্রস্তাব করা হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য বলেন, ছাত্র, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারি সবার ঐক্যের মাধ্যমে এগিয়ে যাওয়া সম্ভব। শিক্ষার মান উন্নয়নে শিক্ষক সমাজের ভূমিকা আছে। শিক্ষক সমিতি যেহেতু শিক্ষকদের নেতৃত্ব দেয় সুতরাং এই বিষয়ে শিক্ষক সমিতির অগ্রণী ভূমিকা রাখতে হবে। নির্ধারিত শিক্ষা বর্ষের মধ্যে সেমিস্টার শেষ করার জন্য আমাদের যে প্রত্যয় আছে সেখানে শিক্ষকদেরকেই দায়িত্ব নিতে হবে। শিক্ষকদের মধ্যে ভাতৃত্বের বন্ধন অটুট রাখায় শিক্ষক সমিতির ভূমিকা রাখতে হব। সকল মতভেদের ঊর্ধ্বে উঠে বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য কাজ করতে হবে। শিক্ষকদের ঐক্যবদ্ধ ভূমিকায় সকল বাধা অতিক্রম করে বিশ্ববিদ্যালয়কে সামনের দিকে এগিয়ে নেওয়া সম্ভব হবে। আশা রাখি শিক্ষক সমিতির নতুন কমিটি শিক্ষকদের মান মর্যাদা নিয়ে কাজ করবে।