বৃষ্টি থেকে সুরক্ষা দেবে ভিভো ভি২৭ই এবং ভি২৭


Desk report | Published: 2023-04-27 17:19:58 BdST | Updated: 2024-04-18 03:22:35 BdST

বর্ষার প্রথম বৃষ্টিতে ভিজতে ইচ্ছে হচ্ছে। কিন্তু সাথে থাকা স্মার্টফোনের চিন্তায় পা বাড়াতে পারছেন না। অথবা ব্যাক পকেটে স্মার্টফোন, হাতে না নিয়েই ভুল করে বসে পড়েছেন। চাপে ক্যামেরা কিংবা স্ক্রিন ফেটে গেল কি না এই দুশ্চিন্তায় ঘাম ছুটছে সারাক্ষণ।

যদি পকেটে থাকে ভিভো ভি২৭ই কিংবা ভি২৭ তবে এসকল দুশ্চিন্তা থেকে নিমিষেই মিলবে মুক্তি। কারণ, গ্লোবাল স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ভিভোর ভি২৭ই এবং ভি২৭ মূলত আইপি৫৪ ডাস্ট এবং স্প্ল্যাশ রেসিসটেন্স যা ধুলোবালি এবং পানি ঝাপটা প্রতিরোধ করতে সক্ষম। এমনকি সাধের স্মার্টফোনটি যেন চাপে ফেটে না যায় এর জন্যও ব্যবস্থা নিয়েছে ভিভো। তাই ৫০০ বার মোচড়ালে কিংবা ১০০০ বার ভারি কোনো কিছু চাপে ভেঙ্গে যাবে না ভিভো স্মার্টফোন দুইটি।

ল্যাব টেস্টে আরো দেখা যায়, এর পাওয়ার বাটন প্রায় দেড় লক্ষবার ক্লিক করবে কোনো ঝামেলা ছাড়াই। অর্থাৎ নিত্যপ্রয়োজনীয় স্মার্টফোনটি হবে দুরন্ত গতি সম্পন্ন।

ভিভোর এক্সক্লুসিভ পোর্ট্রটে এলগরিদম ‘অরা লাইট’ সমৃদ্ধ ক্যামেরা সেন্সর ব্যবহৃত হয়েছে ভি২৭ই এবং ভি২৭ স্মার্টফোন দুইটিতে। ছবির মান ভালো রাখতে ভি২৭ইতে ব্যবহৃত হয়েছে হেলিও জি৯৯ প্রসেসর এবং ভি২৭ তে ব্যবহৃত হয়েছে ডাইমেন্সিটি ৭২০০ প্রসেসর।

যেকোনো ধরনের ঝাঁকুনিতেই পরিষ্কার এবং ঝকঝকে ছবি ও ভিডিও করতে এই স্মার্টফোনে পাওয়া যাবে ওআইএস (অপটিক্যাল ইমেজ স্ট্যাবিলাইজেশন) এবং ইআইএস (ইলেক্ট্রনিক ইমেজ স্ট্যাবিলাইজেশন) সিস্টেম। ফলে যেকোনো ছবি কিংবা ভিডিও হবে প্রাণবন্ত।

৬৬ ওয়াট ফ্লাশ চার্জার ৪,৬০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি চার্জে যেন নিরবিচ্ছিন্ন সঙ্গ দেয়, এজন্যও করা হয়েছে ল্যাব টেস্ট। টেস্টে দেখা যায় প্রায় ১০ হাজার বার প্লাগ ইন-প্লাগ আউট করা যাবে এই স্মার্টফোনে। ফলে ১৯ মিনিটে যেমন ৫০ শতাংশ চার্জের সুবিধা পাওয়া যাবে, তেমনি দীর্ঘদিন ব্যবহারেও এর চার্জিং পোর্ট নষ্ট হবার ভয় থাকবে না।
৮ জিবি র‍্যাম+ ৮ জিবি এক্সটেন্ডন্ট র‍্যাম এবং ২৫৬ জিবি রমের সুবিশাল স্টোরেজ সমৃদ্ধ ভি২৭ই পাওয়া ল্যাভেন্ডার পার্পেল ও গ্লোরি ব্ল্যাক রঙে। দাম পড়বে ৩২,৯৯৯ টাকা। পাশাপাশি নোবেল ব্ল্যাক ও ম্যাজিক ব্লু এই দুই রঙের ভি২৭ এর দাম পড়বে ৫৪,৯৯৯ টাকা।

ভিভো একটি প্রযুক্তিভিত্তিক প্রতিষ্ঠান যা মানুষের চাহিদাকে প্রাধান্য দিয়ে স্মার্ট ডিভাইস ও ইন্টেলিজেন্ট সার্ভিসের মাধ্যমে পণ্য উৎপাদন করে। মানুষ আর ডিজিটাল ওইয়ার্ল্ডের মধ্যে সেতুবন্ধন তৈরি করাই প্রতিষ্ঠানটির উদ্দেশ্য। অনন্য সৃজনশীলতার মাধ্যমে ভিভো ব্যবহারকারীদের হাতে যথোপযুক্ত স্মার্টফোন ও ডিজিটাল আনুষাঙ্গিক তুলে দিচ্ছে। প্রতিষ্ঠানের মূল্যবোধকে অনুসরণ করে ভিভো টেকসই উন্নয়ন কৌশল বাস্তবায়ন করেছে; সমৃদ্ধ ও দীর্ঘস্থায়ী বিশ্বমানের প্রতিষ্ঠান হওয়াই যার ভিশন।

স্থানীয় মেধাবী কর্মীদের নিয়োগ ও উন্নয়নের মাধ্যমে শেনজেন, ডনগান, নানজিং, বেজিং, হংঝু, সাংহাই, জিয়ান, তাইপে, টোকিও এবং সান ডিয়াগো এই ১০টি গবেষণা ও উন্নয়ন কেন্দ্রে (আরএন্ডডি) কাজ করছে ভিভো। যা স্টেট-অফ-দ্য-আর্ট কনজ্যুমার টেকনোলজির উন্নয়ন, ফাইভজি, আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স, ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডিজাইন, ফটোগ্রাফি এবং আসন্ন প্রযুক্তির ওপর কাজ করে যাচ্ছে। চীন, দক্ষিণ ও দক্ষিণপূর্ব এশিয়ায় ভিভোর পাঁচটি প্রোডাকশন হাব আছে (ব্র্যান্ড অথোরাইজড ম্যানুফ্যাকচারিং সেন্টারসহ) যেখানে বছরে প্রায় ২০০ মিলিয়ন স্মার্টফোন বানানোর সামর্থ্য আছে। এখন পর্যন্ত ৬০টিরও বেশি দেশে বিক্রয়ের নেটওয়ার্ক আছে ভিভোর এবং বিশ্বজুড়ে ৪০০ মিলিয়নের বেশি ভিভো স্মার্টফোন ব্যবহারকারী রয়েছে।