স্টামফোর্ডে প্রফেসর ড. হান্নান ফিরোজ স্মারক বক্তৃতা অনুষ্ঠিত


Oishorjo Ika | Published: 2023-10-16 22:30:52 BdST | Updated: 2024-07-20 17:49:13 BdST

গণমাধ্যম উদ্যোক্তা এবং স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা প্রফেসর ড. হান্নান ফিরোজ-এর ৬৮তম জন্মবার্ষিকীতে 'প্রফেসর ড. হান্নান ফিরোজ স্মারক বক্তৃতা- ০২' অনুষ্ঠিত হয়েছে। আলোচনার বিষয় ছিল ডিজিটাল যুগে সংবাদমাধ্যমের অগ্রযাত্রা বনাম দায়িত্বশীলতা।

সোমবার (১৬ অক্টোবর) সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিটোরিয়ামে স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক ফোরাম এই স্মারক বক্তৃতার আয়োজন করে। 

অনুষ্ঠানের প্রধান বক্তা জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক ভোরের কাগজের সম্পাদক শ্যামল দত্ত বলেন, সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে মুদ্রণ ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সঙ্গে যুক্ত হয়েছে মাল্টিমিডিয়া ও মোজো সাংবাদিকতা।ডিজিটাল এই অগ্রযাত্রা কোথায় গিয়ে থামবে কারোরই জানা নেই। অন্যদিকে সোশ্যাল মিডিয়ার বিস্তারও ঠেকানো সম্ভব নয়। তথ্য প্রযুক্তির অগ্রযাত্রার ভালো ও খারাপ দুটি দিকই আছে। যদি খারাপের কথা বলি, ফেসবুকে নানা বিষয় নিয়ে গুজব ছড়ানোয় বিভিন্ন সময়ে আমাদের দেশে সহিংসতা হতে দেখা গেছে। এজন্য বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতার জন্য ফ্যাক্ট চেকিংয়ে জোর দিতে হবে। যদিও ফ্যাক্ট চেকিং আমাদের দেশে এখনো প্রাতিষ্ঠানিক রূপ পায়নি, তবে এটিকে প্রতিষ্ঠানিক রূপ দিতেই হবে।

এসময় তিনি শিক্ষার্থীদের নিয়মিত পত্রিকা ও বই পড়া এবং সাহিত্য চর্চা করার পরামর্শ দেন।

স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা প্রফেসর ড. এম. হান্নান ফিরোজের স্মৃতিচারণ করে শ্যামল দত্ত বলেন, স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটির এই ক্যাম্পাসটি আমার কাছে খুবই পরিচিত। ড. এম. হান্নান ফিরোজ ঘনিষ্ঠতম মানুষ হওয়ায় এখানে অনেকবার এসেছি। সাংবাদিকতার মুদ্রণ শিল্পে যুক্ত থাকার পাশাপাশি তার সবচেয়ে ভালো গুণ ছিল সম্প্রীতি জায়গা।

স্টামফোর্ড সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি রায়হান খান'র সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ সাব্বির’র-এর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য রুমানা হক রিতা, উপ উপাচার্য প্রফেসর ড. ইউনূস মিয়া ,রেজিস্ট্রার আব্দুল মতিন, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক কাজী আব্দুল মান্নান, সাংবাদিক ফোরামের কনভেনর মোশাররফ হোসেন সহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তা এবং সাংবাদিক ফোরামের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।