বিতর্কিতদের দিয়ে লোহাগড়া উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি গঠন


Narail | Published: 2021-07-26 13:58:01 BdST | Updated: 2021-09-18 13:49:00 BdST

বিতর্কিত দুই ব্যক্তিকে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক করে  দীর্ঘ ৯ বছর পর নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

রোববার (২৫ জুলাই) রাতে নড়াইল জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি চঞ্চল শাহরিয়ার মীম ও সাধারণ সম্পাদক মো. রকিবুজ্জামান পলাশ স্বাক্ষরিত এই কমিটি প্রকাশ করা হয়।

লোহাগড়া উপজেলা কমিটিতে এস. এম. মারুফ হোসাইন সভাপতি ও মো. সজীব মুসল্লী সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন ।

সভাপতি এস.এম. মারুফ হোসেনকে মাদক ব্যবসা অভিযোগ গত ১৫.০৬.২১ তারিখে জেলা ছাত্রলীগের কমিটি থেকে অব্যাহতি দিয়েছে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। ইতিমধ্যে মদ্য পানের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল একই সাথে প্রতিবাদের ঝড় তুলছে।

এদিকে সাধারণ সম্পাদক হওয়া সজীব মুসল্লির বিরুদ্ধে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সঙ্গে সংযুক্ত থাকার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তিনি বিভিন্ন সময়ে তার ফেইসবুকে ইসলামী আন্দোলনের পোস্টার শেয়ার করেছেন এবং কোটা সংস্কার আন্দোলনের সময় নুর-রাশেদদের পক্ষে অবস্থান নিয়েছিলেন বলে অভিযোগ করেছেন জেলা ছাত্রলীগের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা।

অন্যদিকে, সাধারণ সম্পাদক সজীব মুসল্লী ইসলামী ছাত্র আন্দোলনের পাখার সমর্থক, ২০১৮ সালের কোটা বিরোধী আন্দোলনে সক্রিয় ছিলো, তার পরিবার জামাত সমর্থক।

এ ছাড়াও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাজমুস সাদাত নোভা কেন্দীয় ছাত্রলীগ কতৃক বহিস্কৃত।পৌর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সাজ্জাদুল ইসলাম সোহেল মাদকাসক্ত মদ্য পানের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে জেলা ছাত্রলীগের এক নেতা বলেন, আমরা যারা সবকিছু বাদ দিয়ে শুধুই ছাত্রলীগ করেছি তাদের বাদ দিয়ে মাদকাসক্ত ও আমদানিকৃতদের রাতের আধারে উপজেলা কমিটি করা হয়েছে, আমরা যারা প্রকৃত মুজিব সৈনিক এবং ভালবেসে ছাত্রলীগ করি জেলা ছাত্রলীগের তাদের এমন জঘন্য কর্মে ব্যথিত হয়েছি।

নড়াইল জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রকিবুজ্জামান পলাশের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাদের কাছে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ কেউ করে নাই। আসলে অবশ্যই তদন্ত করে ব্যবস্থা নিবো। মদের ছবি ভাইরাল হয়েছে, এবিষয়ে তিনি বলেন, ছবি প্রমাণ হতে পারেনা। এগুলো এডিট করা যায়। তখন এই প্রতিনিধি তাকে পাল্টা প্রশ্ন করেন, ভুয়া কিভাবে প্রমাণ করলেন? কোন ল্যাবে পরীক্ষা করছেন? তিনি উত্তরে বলেন, আমি ভুয়া বলি নাই। বলছি যে আমাদের কাছে কেউ সুনির্দিষ্ট অভিযোগ দেয় নাই। দিলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নিবো।

এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যকে কয়েক দফা মোবাইলে চেষ্টা করা হলেও তারা ফোন রিসিভ করে নাই।

উল্লেখ্য, সর্বশেষ ২০১২ সালের ১১ জুলাই লোহাগড়া উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি গঠন করেন নড়াইল জেলা ছাত্রলীগের তৎকালীন সভাপতি মোস্তফা কামরুজ্জামান কামাল ও সাধারণ সম্পাদক সৌমেন বসু।