অনেকের রুটি-রুজি এই ক্যামেরায়


রিশাদ হোসেন | Published: 2023-08-18 16:21:35 BdST | Updated: 2024-06-25 05:38:10 BdST

প্রতি বছর ১৯ আগস্ট বিশ্ব আলোকচিত্র দিবস পালিত হয়৷ সারা পৃথিবীতে সবাই বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে পালন করে এই দিনটি। ১৮৩৭ সালে নাইসফোর নিপেক ও লুইস ডেগুরে ডেগুরে টাইপ ফটোগ্রাফিক সিস্টেম আবিষ্কার করেন। এই উপায়ের নাম হল ড্যাগুইররিয়ো টাইপ। বিজ্ঞানী লুইস ড্যাগুইর সর্বপ্রথম ছবি তোলার ব্যবহারিক এ উপায় আবিষ্কার করেন। তার নাম অনুসারেই ছবি তোলার এই উপায়ের নাম দেয়া হয় ড্যাগুইররিয়ো টাইপ ফটোগ্রাফি। তখন থেকেই ফটোগ্রাফিতে এক নতুন অধ্যায়ের সূচনা হয়। ১৮৩৯ সালের ১৯ আগস্ট সর্বপ্রথম ফরাসি সরকার ১৯ আগস্টকে বিশ্ব ফটোগ্রাফি দিবস হিসেবে ঘোষণা করেন। তখন থেকে ড্যাগুইররিয়ো টাইপ ফটোগ্রাফি মুক্তি লাভের সেই দিনটিকে স্মরণ করার উদ্দেশ্যে প্রতি বছরের এই দিন বিশ্ব আলোকচিত্র দিবস হিসেবে উদযাপিত হয়ে থাকে। অন্যান্য দেশের ন্যায় বিশ্ব আলোকচিত্র দিবস উপলক্ষে ১৯ আগস্ট বাংলাদেশের বিভিন্ন ফটোগ্রাফার কমিউনিটি এর উদ্যোগে শোভাযাত্রা, আলোচনা অনুষ্ঠান ও তথ্যচিত্র প্রদর্শিত হয়। ফটোগ্রাফারদের প্রযোজনায় আলোকচিত্রের বিবর্তন ও ভবিষ্যৎ বিষয়ে তথ্যচিত্র ও প্রদর্শিত হয়।

বিশ্ব ফটোগ্রাফিক দিবস উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিশারিজ বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী ও ফটোগ্রাফার রিফাত আহমেদ এবং যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী ও ফটোগ্রাফার মো. নাঈম এর সাথে তাদের অনুভূতিসহ নানান বিষয়ে কথা বলা হয়। আজকের লেখনিতে সেই গল্পই তুলে ধরা হয়েছে।

প্রশ্ন: একটা ছবি তোলার সময় কোন কোন বিষয়গুলো লক্ষ্য রাখা জরুরী?

রিফাত আহমেদ: ফটোগ্রাফি করার সময়, ফ্রেম, লাইটিং, কম্পজিশন এবং সব থেকে জরুরী হলো স্টোরি এই কয়েকটা বিষয় ঘুরপাক খায় আমার কাছে। এই বিষয়গুলো ফুটিয়ে তোলাই ফটোগ্রাফি।

প্রশ্ন: ফটোগ্রাফিতে আসলেন কিভাবে?

রিফাত আহমেদ: বর্তমানে ফটোগ্রাফি সেক্টর দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে একটা সময় শুধু বিয়ে আর কম্পিউটারের দোকানের ফরমাল ফটোগ্রাফি ছাড়া ফটোগ্রাফির তেমন প্রয়োগ করা হতো না তবে বাংলাদেশে বর্তমানে রিয়েলস্টেট ও প্রডাক্ট ফটোগ্রাফিগুলো ইতিমধ্যে চালু হচ্ছে।

প্রশ্ন: একজন পেশাদার ফটোগ্রাফার হতে কি কি লাগে বলে আপনি মনে করেন?

রিফাত আহমেদ: পেশাদার ফটোগ্রাফার হওয়ার ক্ষেত্রে প্রথমত ফটোগ্রাফিক অভিজ্ঞতা এবং গভীর জ্ঞানের পাশাপাশি দরকার ভাল এডিটিং দক্ষতা।

প্রশ্ন: বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে ফটোগ্রাফিক দিবসের গুরুত্ব কতটুকু?

মো. নাঈম: বাংলাদেশে ফটোগ্রাফি দিন দিন অনেক জনপ্রিয় হচ্ছে। এমনকি অনেক শিক্ষার্থী ফটোগ্রাফি করেই হাত খরচ চালায় এবং অনেকের রুটি-রুজি হয় এই ক্যামেরায়। অদূর ভবিষ্যতে ফটোগ্রাফি বড় সেক্টরে পৌঁছাবে আশা করি । সেই দিক থেকে আমি মনে করি মানুষকে ফটোগ্রাফিতে আরো উদ্ভুদ্ধ করতে ফটোগ্রাফিক দিবসের অবশ্যই গুরুত্ব রয়েছে।
এছাড়া তেমন কোন চ্যালেঞ্জের মুখে এখনও পড়ি নি।

প্রশ্ন :ফটোগ্রাফির কিছু ভালো মুহূর্তের কথা আমাদের সাথে শেয়ার করুন?

মো. নাঈম: ক্যাম্পাসে আসার পর একটা ইচ্ছে ছিলো, যে সবাই আমাকে এক নামে চিনবে। আল্লাহর রহমতে সেই জায়গায় পৌঁছাতে পেরেছি। সবচেয়ে ভালো লাগে যখন মানুষ আমাকে নাঈম এর চেয়ে ফটোগ্রাফার বলে বেশি ডাকে। ভার্সিটির সব স্যারেরা তো নামে চিনে না, অনেক সিনিয়র স্যার যখন বলে এই ছেলেটা ভালো ছবি তোলে তখন আমার খুব প্রশান্তি লাগে। এইসব জিনিস আমাকে বিমোহিত করে।

প্রশ্ন: ফটোগ্রাফি করতে গিয়ে কি কখন কোন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছেন?

মো. নাঈম: চ্যালেঞ্জ বলতে, ড্রোন উড়াতে গিয়ে মাঝে মধ্যে কিছু ঝামেলা পোহাতে হয় । অনেক কিছুর খেয়াল রাখতে হয় আর ভয় ও লাগে অনেক। এইগুলো ছাড়া তেমন একটা চ্যালেঞ্জের মুখে এখনও পড়ি নি।