কাজ করতে ক্লান্ত লাগে? জেনে নিন কারণ


এম এ লতিফ | Published: 2023-09-26 10:24:24 BdST | Updated: 2024-06-25 03:51:10 BdST

কাজ করতে করতে একটা সময় ক্লান্ত লাগাটাই স্বাভাবিক। কিন্তু যদি এমন হয় যে কাজ করতে গেলেই ক্লান্ত লাগে, তবে সতর্ক হোন। কারণ কোনো কাজ করতে ইচ্ছা না করা কেবল অলসতার কারণে ঘটে না, এর পেছনে বড় কারণ হতে পারে ক্লান্তি। আর এই ক্লান্তির অন্যতম কারণ হচ্ছে শরীরে বিভিন্ন উপাদানের ঘাটতি। প্রয়োজনীয় ভিটামিন, আয়রন ইত্যাদির অভাবে শরীর সব সময় ক্লান্ত থাকে। তখন আর কোনো কাজেই আগ্রহ থাকে না। সেইসঙ্গে সারাক্ষণ ঝিমুনি লাগে, মাথা ধরে থাকে। আপনারও যদি এ ধরনের সমস্যা হয়ে থাকে তবে জেনে নিন এর সম্ভাব্য কয়েকটি কারণ-

আয়রনের ঘাটতি

আমাদের যখন তখন ক্লান্ত বোধ করার অন্যতম কারণ হতে পারে শরীরে আয়রনের ঘাটতি। এটি আমাদের শরীরের সার্বিক সুস্থতার জন্য অন্যতম জরুরি উপাদান। কারণ এই আয়রনই আমাদের শরীরের সবগুলো কোষে অক্সিজেন পৌঁছে দিতে কাজ করে। কারও শরীরে আয়রনের ঘাটতি থাকলে তার অ্যানিমিয়া দেখা দেয়। এর ফলে শরীরে ক্লান্তি ভর করে। আয়রনের ঘাটতি পূরণ করার জন্য পাতে নিয়মিত বিনস, রেড মিট, বিভিন্ন ধরনের ডাল, পালং শাক, কাঁচা কলা, কচু, কচুর মুখী ইত্যাদি রাখবেন।

ভিটামিন বি১২-এর ঘাটতি

ভিটামিন বি১২-এর ঘাটতির কারণে শরীরে অতিরিক্ত ক্লান্তি দেখা দিতে পারে। কারণ আমাদের শরীরে লোহিত রক্তকণিকা উৎপাদনে সাহায্য করে ভিটামিন বি১২। এর পাশাপাশি শরীরে শক্তি জোগাতেও কাজ করে এই ভিটামিন। এর এভাবে ক্লান্তি ও দুর্বলতা বেড়ে যায় অনেকটাই। ভিটামিন বি১২-এর ঘাটতি দূর করতে ডিম, মাছ ও দুগ্ধজাত দ্রব্য খেতে হবে নিয়মিত।

ভিটামিন ডি-এর ঘাটতি

শরীরে ক্লান্তি এসে ভর করার অন্যতম কারণ হলো ভিটামিন ডি এর ঘাটতি। কারণ এই ভিটামিন শরীরে শক্তি জোগাতে কাজ করে। সেইসঙ্গে পেশি শক্ত করতেও সাহায্য করে। ভিটামিন ডি এর ঘাটতি হলে ক্লান্তি ও দুর্বলতা যেন ছেঁকে ধরে। এই ভিটামিনের অভাব মেটানো খুব সহজ। রোদের মধ্যে মিনিট বিশেক সময় কাটালেই এর অভাব দূর হয়। সেইসঙ্গে বিভিন্ন সামুদ্রিক মাছ যেমন স্যামন, ম্যাকারেল জাতীয় মাছও ভিটামিন ডি-এর সমৃদ্ধ উৎস।

ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিডের ঘাটতি

ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড আমাদের মস্তিষ্কের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে কাজ করে। সেইসঙ্গে এটি শরীরে শক্তি জোগাতেও সাহায্য করে। এটি শরীরের জন্য খুব দরকারি একটি ফ্যাট। এর অভাবেও শরীরে ক্লান্তি দেখা দেয়। বাদাম, চিয়া বীজ, স্যামন, ম্যাকারেল মাছে প্রচুর পরিমাণে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে। তাই এ ধরনের খাবার নিয়মিত রাখতে হবে তালিকায়।